খেলা

এতো আয়োজনের কিছুই জানতেন না মাশরাফি

অধিনায়ক হিসেবে শেষ ম্যাচ। স্বাভাবিকভাবেই সতীর্থদের কাছ থেকে আলাদা অভিবাদন পাবেন এমনটা জানতেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। কিন্তু মাঠে যা হয়েছে তাতে কিছুটা অবাক হয়েছেন তিনি। ম্যাচ শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ পরই সবার গায়ের জার্সিতে লেখা ‘মাশরাফি’। সবার জার্সি নম্বর ‘২।’ জার্সির সামনে লেখা ‘থ্যাঙ্ক ইউ ক্যাপ্টেন।’ অথচ এর কিছুই জানতেন না সদ্য সাবেক হওয়া অধিনায়ক।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

অধিনায়ক হিসেবে শেষ ম্যাচ। স্বাভাবিকভাবেই সতীর্থদের কাছ থেকে আলাদা অভিবাদন পাবেন এমনটা জানতেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। কিন্তু মাঠে যা হয়েছে তাতে কিছুটা অবাক হয়েছেন তিনি। ম্যাচ শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ পরই সবার গায়ের জার্সিতে লেখা ‘মাশরাফি’। সবার জার্সি নম্বর ‘২।’ জার্সির সামনে লেখা ‘থ্যাঙ্ক ইউ ক্যাপ্টেন।’ অথচ এর কিছুই জানতেন না সদ্য সাবেক হওয়া অধিনায়ক।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বিশাল জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বললেন, 'আজকে ওরা যা করেছে আমি জানতাম না। আমি এর জন্য প্রস্তুত ছিলাম না। প্রস্তুত থাকলে হয়তো আরেকটু অন্যরকম নিজের মতো মনে হতো।'

খেলা শেষ হতেই প্রায় সব সতীর্থরাই আলিঙ্গন করেছেন মাশরাফিকে। বাদ যাননি কোচ কর্মকর্তারাও। তামিম ইকবাল তো কাঁধেই তুলে নিলেন অধিনায়ককে। চলল মাঠ প্রদক্ষিণ। বড় চমক আসে এরপরই। মাশরাফির নামে বিশেষ জার্সি পরে সবাই মাঠে নামেন। যার একটি উপহারও দেন অধিনায়ককে। অবশ্য তাতে ছিল দলের সবার অটোগ্রাফ। বিসিবির পক্ষ থেকে সভাপতি নাজমুল হাসানও উপহার দেন একটি ক্রেস্ট। এমন অভিবাদনে স্বাভাবিকভাবেই অবাক মাশরাফি।

মাঠে উপস্থিত সঞ্চালককে এমন আবেগঘন আয়োজনের জন্য কৃতজ্ঞতাও জানিয়েছিলেন মাশরাফি, 'এটা অনেক বড় সম্মান আমার জন্য। সম্ভবত মাঠেই সবচেয়ে সেরা উপহার (দলের জয়) পেয়েছি। ক্রিকেট বোর্ড, আমাদের ছেলেরা, সবাই ছিল দারুণ। সবাইকে ধন্যবাদ।'

অধিনায়কের বিদায় বেলায় শুধু সতীর্থরাই নয়, দর্শকদের ঢেউ ছিল সিলেটে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে গিয়েছে অনেকেই। অধিনায়কের শেষ বেলায় তাকে বিদায় জানাতে। নানা ধরণের ব্যানার, ফেস্টুন ও প্লেকার্ডে অধিনায়কের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। মাশরাফি মাশরাফি চিৎকারে গ্যালারি মাতিয়ে রেখেছিলেন তারা। অথচ এদিন অনেকটা সময় বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টি উপেক্ষা করে অধিনায়ককে উজ্জীবিত করেছেন তারা।

মাশরাফি ধন্যবাদ দিতে ভোলেননি তাদের, 'আগেই বলেছি খেলাটার প্রাণ কিন্তু দর্শক। এই খেলার কোন মূল্যই নেই যদি গ্যালারি ফাঁকা থাকে। সামাজিক মাধ্যম নিয়ে অনেকেই বিরক্ত, আমি নিজেও বিরক্ত। তারপরও এই আলোচনা হচ্ছে বলেই আমি আপনি আলোচনায় আছি। ওই দর্শকরাই করছে, গালিও দিচ্ছে, ভালোও বাসছে। দর্শকরা যাই করে মাঠে, ভালোবেসেই করে। উনারা আছে বলেই খেলোয়াড়রা ভালো কিছু করে আনন্দ পায়। আশা করি এটা চলবে সামনে ইনশাল্লাহ, ধারাবাহিকভাবে হবে। আমার ক্ষেত্রে যেটা হয়েছে আমি অনেক আনন্দ পেয়েছি, ধন্যবাদ। যারা অনেক কষ্ট করে এসেছে মাঠে এসেছে। এই বৃষ্টির মধ্যে এতক্ষণ থেকেছে, ধন্যবাদ।'

Comments

The Daily Star  | English

Response to Iran’s attack: Israel war cabinet weighing options

Israel yesterday faced pressure from allies to show restraint and avoid an escalation of conflict in the Middle East as it considered how to respond to Iran’s weekend missile and drone attack.

4h ago