ঝুঁকিতে মেসির টানা চতুর্থ ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট

চলতি মৌসুম ভেস্তে যাওয়ার শঙ্কা বেড়েছে। আর এমনটা হলে, টানা চতুর্থ ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট হাতছাড়া হয়ে যাবে বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসির।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ক্রমেই বাড়ছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা, সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। ফলে চলতি মৌসুমের ফুটবল লিগগুলো মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা দিন দিন কমছে। যদিও বিকল্প উপায়ে মাঠে নামার উপায় খোঁজা হচ্ছে। কিন্তু শতভাগ নিরাপদ না হওয়ার আগ পর্যন্ত কোনো লিগ আয়োজন না করার আহ্বান জানিয়েছে ফিফা। তাতে চলতি মৌসুম ভেস্তে যাওয়ার শঙ্কা বেড়েছে। আর এমনটা হলে, টানা চতুর্থ ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট হাতছাড়া হয়ে যাবে বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসির।

শেষ তিন মৌসুম ধরে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট জিতে আসছেন মেসি। সবমিলিয়ে সংখ্যাটা রেকর্ড ছয় বার। চলতি মৌসুমে সে রেকর্ডটা আরও সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে মাঠে নেমেছিলেন। কিন্তু অনাকাঙ্ক্ষিত ইনজুরির কারণে মৌসুমের শুরুর আগে অনুশীলনে আঘাত পান তিনি। তাতে মাঠের বাইরে থাকতে হয় ৪২ দিন। এ সময়ে ম্যাচ মিস করেন ৪টি। পরে ফিরলেও পুরো ম্যাচ খেলতে পারেননি বেশ কিছু। ছন্দ খুঁজে পেতেও সময় লাগে। এরপর সম্পূর্ণ ফিট হয়ে ছন্দ খুঁজে পেলে ফের আবারও পড়েন ইনজুরিতে। তাতে ম্যাচ মিস হয় ১টি। যে কারণে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েন এ তারকা।

তারপরও এ মৌসুমে লা লিগায় সর্বোচ্চ ১৯টি গোল করেছেন মেসি। সবমিলিয়ে ১৮৯০ মিনিট মাঠে ছিলেন তিনি। প্রতি ৯৯ মিনিটে গোল পেয়েছেন ১টি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা করিম বেনজেমা ২২২০ মিনিট খেলে গোল করেন ১৪টি। মৌসুম না হলে পিচিচি ট্রফিটা এবারও যাবে মেসির হাতেই। কিন্তু হাতছাড়া হয়ে যাবে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট। এমনকি টানা ১১ বছর পর ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট যাবে স্পেনের বাইরে। তবে ২০১৩-১৪ মৌসুমে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে যৌথভাবে এ পুরস্কার জিতেছিলেন লুইস সুয়ারেজ। তখন তিনি খেলতেন ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলে।  

এ মৌসুমে আর খেলা না হলে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট যাবে ইতালিয়ান ক্লাব লাৎসিওর ফরোয়ার্ড চিরো ইমোবিলের হাতে। এ মৌসুমের শুরু থেকেই দারুণ খেলছিলেন ৩০ বছর বয়সী এ ইতালিয়ান ফরোয়ার্ড। ২১৮৬ মিনিট খেলে ২৭টি গোল দিয়েছেন তিনি। ইতালিয়ান সিরি আয় দ্বিতীয় স্থানে আছেন হালের আরেক সেরা তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ১৯৪৫ মিনিট খেলে ২১টি গোল দিয়েছেন জুভেন্টাসের এ পর্তুগিজ তারকা।

অল্পের জন্য প্রথমবারের মতো প্রথমবারের মতো ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুটের স্বাদ পাওয়া থেকে পিছিয়ে পড়বেন বায়ার্ন মিউনিখের ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভানডস্কি। ২০৪২ মিনিট খেলে ২৫টি গোল দিয়েছেন পোল্যান্ডের এ খেলোয়াড়। তবে জার্মান লিগে টানা তৃতীয়বারের মতো সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কারটি যাবে তার হাতেই। এ নিয়ে চতুর্থবার এ ট্রফি জিতবেন তিনি। প্রথম দুই বার অবশ্য বুরুশিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে জিতেছিলেন। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আরবি লাইপজিগের জার্মান ফরোয়ার্ড টিমো ভের্নার গোল দিয়েছেন ২১টি।

চলতি মৌসুমের বিস্ময় বালক এরলিং হালান্ডও অবশ্য এ মৌসুমে ২৫টি গোল করেছেন। কিন্তু তার ১৬টি গোল অস্ট্রিয়ান ক্লাব রেড বুল সলজবুর্গের হয়ে। তাই সবমিলিয়ে তার পয়েন্ট ৪২। এ মৌসুম ফুটবল আর মাঠে না গড়ালে টানা দুই বছরের শীর্ষ গোলদাতা মোহাম্মদ সালাহকে টপকে ইংলিশ লিগে লেস্টার সিটির জেমি ভার্ডি পাবেন সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার। ২২২৪ মিনিট খেলে তিনি গোল দিয়েছেন ১৯টি। ফরাসী লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার যাবে পিএসজির কিলিয়েন এমবাপের হাতে। লিগ ওয়ানে সর্বোচ্চ ১৮টি গোল দিয়েছেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

5.5 magnitude earthquake jolts Dhaka, Ctg, Sylhet

A magnitude 5.5 earthquake jolted Dhaka, Sylhet, Chattogram and some other parts of the country this evening.

1h ago