ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডের বর্ষসেরা উইলিয়ামসন, টি-টোয়েন্টিতে টেইলর

করোনাভাইরাসের কারণে ২০১৯-২০ মৌসুমের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনলাইন প্লাটফর্মে আয়োজন করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (এনজেডসি)।
taylor and williamson
ছবি: এএফপি

২০১৯ সাল জুড়ে ব্যাট হাতে সাদা বলের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি পেলেন কেন উইলিয়ামসন ও রস টেইলর। নিউজিল্যান্ডের বর্ষসেরা ওয়ানডে খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান অধিনায়ক উইলিয়ামসন। আর বর্ষসেরা টি-টোয়েন্টি খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন অভিজ্ঞ তারকা টেইলর।

করোনাভাইরাসের কারণে ২০১৯-২০ মৌসুমের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এবার অনলাইন প্লাটফর্মে আয়োজন করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (এনজেডসি)। চার দিনব্যাপী আয়োজনের তৃতীয় দিনে বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হয়েছে বর্ষসেরা নারী ওয়ানডে ও নারী টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটারের নামও। পুরস্কার দুটি জিতেছেন যথাক্রমে সুজি বেটস ও সোফি ডিভাইন।

বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতাটা উইলিয়ামসনের জন্য একরকম অবধারিত ছিল। গেল বছর তার নেতৃত্বে বিশ্বকাপের ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছিল কিউইরা। গোটা আসরে অসাধারণ ব্যাটিংও উপহার দেন তিনি। ৮২.৫৭ গড়ে তার ব্যাট থেকে এসেছিল ৫৭৮ রান। দুর্দান্ত নৈপুণ্যের সুবাদে বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছিলেন ২৯ বছর বয়সী ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

উইলিয়ামসনের প্রাপ্তিতে উচ্ছ্বসিত ব্ল্যাকক্যাপস প্রধান কোচ গ্যারি স্টিড বলেছেন, ‘গেল বছর আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে কেন (উইলিয়ামসন) ছিল অনন্য।’

‘যুক্তরাজ্যে হওয়া টুর্নামেন্টে সে যা অর্জন করেছে, তাতে সে অত্যন্ত গর্বিত হতে পারে। সে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে, গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে রান করেছিল এবং পুরো টুর্নামেন্ট জুড়ে সে একটি ছন্দ বেঁধে দিয়েছিল, যা আমাদের দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলতে সাহায্য করেছে।’

‘(ওয়ানডের বর্ষসেরা) নির্বাচিত হওয়াটা তার পুরোপুরি প্রাপ্য ছিল।’

গেল বছর টি-টোয়েন্টিতে টেইলরের পারফরম্যান্স ছিল ধারাবাহিক। ক্রিকেটের ক্ষুদ্রতম সংস্করণে তিনি ১৩০ স্ট্রাইক রেটে করেন ৩৩০ রান। কিউইদের শেষ তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজে যথাক্রমে শ্রীলঙ্কা, ইংল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষেও তার ব্যাট থেকে ছুটেছে রানের ফোয়ারা।

টেইলরের প্রশংসায় পঞ্চমুখ স্টিড বলেছেন, ‘বিভিন্ন স্থানে এবং দেশে দ্রুত এবং নিখুঁতভাবে ব্যাটিং কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার দক্ষতা তার রয়েছে। এটি এমন একটি দক্ষতা, যা দারুণভাবে দলের কাজে আসে এবং খেলার সংক্ষিপ্ততম সংস্করণে আমাদের পরিকল্পনাগুলো দ্রুত খাপ খাওয়াতে সহায়তা করে।’

Comments

The Daily Star  | English