চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতবেন, বার্সাকে হারিয়েই বুঝে গিয়েছিলেন মরিনহো

যে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে সহজে জিতেছিল তারা, তাদের কাছেই কাতালানরা হেরে যায় সেমিফাইনালে। তাতেই ইন্টার কোচ হোসে মরিনহো বুঝতে পেরেছিলেন যে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে চলেছেন।
jose mourinho
ছবি: এএফপি

ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা তখন দুর্দান্ত ছন্দে। আগের বছরই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছিল তারা। সেবারও একই ধারায় এগিয়ে যাচ্ছিল দলটি। কিন্তু যে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে সহজে জিতেছিল তারা, তাদের কাছেই কাতালানরা হেরে যায় সেমিফাইনালে। তাতেই ইন্টার কোচ হোসে মরিনহো বুঝতে পেরেছিলেন যে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে চলেছেন। অথচ তাদের ফাইনালের প্রতিপক্ষ ছিল জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে যাদের ঐতিহ্য অনেক সমৃদ্ধ।

ঘটনাটি ২০০৯-১০ মৌসুমের। সেবার গ্রুপ পর্বেই দেখা হয়েছিল বার্সেলোনা ও ইন্টারের। প্রথম লেগটি ড্র হলেও দ্বিতীয় লেগে ২-০ গোলের সহজ জয় পায় কাতালানরা। এরপর তারা মুখোমুখি হয় সেমিফাইনালে। এবার কিন্তু এবার ইন্টার প্রথম লেগের ম্যাচে বার্সাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে দেয়। অথচ ম্যাচে একক প্রাধান্য ছিল বার্সারই। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় হারতে হয় স্প্যানিশ দলটিকে। তাই দ্বিতীয় লেগে তারা ১-০ গোলে জয় পেলেও তা যথেষ্ট না হওয়ায় ফাইনালে নাম লেখায় ইন্টারই।

সম্প্রতি ইতালির শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম লা গাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সেই স্মৃতি তুলে ধরেছেন মরিনহো। প্রথম লেগে জয়ের পরও কেন খেলোয়াড়দের বকাঝকা করেছিলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা খুব কঠিন ছিল। কিন্তু এটাই আমি। বিশেষ করে বারগেমোয় (বার্সার বিপক্ষে প্রথম লেগে) জয়ের পর আমি আমার খেলোয়াড়দের উপর ক্রুদ্ধ ছিলাম এবং তাদের বলেছিলাম, বাজে খেলেও তোমরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে যাচ্ছ। আমি জানি, এতে তারা আঘাত পেয়েছে। পরে আমি বুঝতে পেরেছিলাম এবং আমি ক্ষমাও চেয়েছিলাম।’

ইন্টারের কোচ হিসেবে ক্যারিয়ারের সবচেয়ে সোনালি সময় পার করেছেন বলে মনে করেন মরিনহো। পর্তুগিজ এই কোচ জানান, ‘আমি তখন আমার ক্যারিয়ারের সেরা সময়ে ছিলাম। তখন আমি আমার দলের সবার আবেগ বুঝতে পারতাম। তখন আমি হৃদয়ের দুইশ ভাগ দিয়ে সবকিছু অনুভব করতাম। আমি অবশ্য এর আগেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছিলাম। কিন্তু সবসময় নিজেকে নিয়েই ভাবতাম। কিন্তু ইন্টারে আমি এমন ছিলাম না।’

ইন্টারের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের আগে পোর্তোর হয়েও এই অনন্য স্বাদ পেয়েছিলেন মরিনহো। তবে ইন্টার ছাড়ার পর আর সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করতে পারেননি তিনি। উল্লেখ্য, বার্সেলোনার বিপক্ষে সেই সেমিফাইনাল জেতার পরই রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার ব্যাপারটা নিশ্চিত করেছিলেন স্বঘোষিত ‘স্পেশাল ওয়ান’।

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30, there were murmurs of one death. By then, the fire, which had begun at 9:50, had been burning for over an hour.

Now