নোয়াখালীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে দুজনের মৃত্যু

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায় মাত্র ৪ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনার উপসর্গ জ্বর, সর্দি, কাশি ও গলাব্যথা নিয়ে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটা ও ১১ টার দিকে ওই দুই ব্যক্তির মৃত্যুর হয়।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায় মাত্র ৪ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনার উপসর্গ জ্বর, সর্দি, কাশি ও গলাব্যথা নিয়ে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটা ও ১১ টার দিকে ওই দুই ব্যক্তির মৃত্যুর হয়।

এর মধ্যে সোনাইমুড়ি পৌরসভা এলাকার মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করতে পারেনি স্বাস্থ্য বিভাগ। তবে, তার পরিবারের ৫ সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। অপরদিকে অম্বর নগরে মারা যাওয়া ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

সোনাইমুড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ( ভারপ্রাপ্ত) ডা. মো. রিয়াজ উদ্দীন জানান, করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া দুই ব্যক্তির বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড এলাকার মারা যাওয়ার ব্যক্তি পেশায় একজন চা দোকানি ছিলেন। তিনি গত ৪-৫ দিন যাবত জ্বর, সর্দি  ও কাশিতে ভুগছিলেন। বৃহস্পতি বার সকাল ৭ টার দিকে তিনি নিজ বাড়িতে মারা যান। তার দাফনের পর স্বাস্থ্য বিভাগকে জানানোর কারণে নমুনা সংগ্রহ করা যায়নি। তবে পরিবারের ৫ সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

অপর দিকে অম্বরনগর এলাকায় মারা যাওয়া ব্যক্তি ৬-৭ দিন যাবত জ্বর, গলাব্যথায় ভুগছিলেন। আজ বেলা ১১ টার সময় তিনি নিজ বাড়িতে মারা যান। খবর পেয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মীরা বাড়ি গিয়ে  নমুনা সংগ্রহ করেছে। মৃত ব্যক্তি ও তাদের স্বজনদের সংগ্রহকৃত নমুনা দুপুরে নোয়াখালী আব্দুল মালেক উকিল সরকারি মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৮ জন। এদের মধ্যে ২ জন মারা যাওয়ার পর তাদের করোনা শনাক্ত হয়।

Comments

The Daily Star  | English

No fire safety measures despite building owners being notified thrice: fire service DG

There were no fire safety measures at the building on Bailey Road where a devastating fire last night left at least 46 people dead, Fire Service and Civil Defence Director General Brig Gen Md Main Uddin said today

1h ago