ক্রিকেটেও বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়েছিলেন, জানালেন গেইল

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশি নির্যাতনে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভে ফুঁসছে দেশটির হাজার হাজার মানুষ। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সহমত জানিয়ে ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট তারকা ক্রিস গেইল বললেন, ক্রিকেট খেলতে গিয়ে তিনিও অনেকবার বর্ণ বিদ্বেষের শিকার হয়েছেন।
chris gayle
ছবি: এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশি নির্যাতনে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুকে ঘিরে পরিস্থিতি উত্তাল। কৃষ্ণাঙ্গ সাবেক এই বাস্কেটবল খেলোয়াড়কে বর্ণবিদ্বেষের মানসিকতা থেকেই মেরে ফেলা হয়েছে জানিয়ে বিক্ষোভে ফুঁসছে দেশটির হাজার হাজার মানুষ। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সহমত জানিয়ে ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট তারকা ক্রিস গেইল বললেন, খেলতে গিয়ে তিনিও অনেকবার বর্ণ বিদ্বেষের শিকার হয়েছেন।

গত ২৫ মে মিনিয়াপোলিস রাজ্যে এক পুলিশ কর্মকর্তা অপরাধী সন্দেহে পথ আটকে নির্যাতন চালান ফ্লয়েডের উপর। এক ভিডিওতে দেখা যায়, ‘আমি শ্বাস নিতে পারছি না’ বলে সাহায্য চাইছিলেন তিনি। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

৪৬ বছর বয়েসি কৃষ্ণাঙ্গ ফ্লয়েডের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি শহরে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। জারি করা হয়েছে কারফিউ। কিন্তু তা উপেক্ষা করেই চলছে প্রতিবাদ কর্মসূচি। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের পাশাপাশি পুলিশি দমন-পীড়নের বিপরীতে চলছে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ। সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।

সোমবার নিজের ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক পোস্টে বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান গেইল জানান, গায়ের রঙের কারণে তারও আছে অনেক তিক্ত অভিজ্ঞতা, ‘সারা দুনিয়ায় ভ্রমণ করি আমি। আমিও বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়েছি। শুধুমাত্র আমার গায়ের রঙের কারণে বিদ্বেষের শিকার হতে হয়েছে। বর্ণবিদ্বেষ ফুটবলেই আবদ্ধ নেই, ক্রিকেটেও তা আছে। এমনকি দলের ভেতরও। শুধু গায়ের রঙ কালো বলে অনেক সময় আমি দোষী হয়েছি। কিন্তু আমি বলতে চাই, আমি কৃষ্ণাঙ্গ এবং আমি শক্তিশালী।’

বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় তারকাদের একজন সারা পৃথিবীর কৃষ্ণাঙ্গদের মাথা তুলে দাঁড়াবার আহবানও করেছেন, ‘সব মানুষের বাঁচার অধিকার আছে, কৃষ্ণাঙ্গদেরও সব অধিকার আছে। সবার জীবনের মূল্য সমান। বর্ণবিদ্বেষের প্রতি ধিক্কার। কৃষ্ণাঙ্গদের বোকা ভেবো না। আর কৃষ্ণাঙ্গদের বলছি, নিজেদের ছোট ভেবো না।’

Comments

The Daily Star  | English

Police lob sound grenades at protesting students near TSC

Students were marching towards TSC following a 'gayebana janaza' for the six killed yesterday

28m ago