সুনামগঞ্জে ১২ মাস ধরে বেতনহীন চুক্তিভিত্তিক স্বাস্থ্যকর্মীদের বিক্ষোভ, আটক ৬

বারো মাস ধরে বেতন না পাওয়া ও নতুন করে টেন্ডারের মাধ্যমে একই পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরুর প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে বিক্ষোভ করেছেন আউটসোর্সিংয়ে নিয়োগ পাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীরা। প্রতিবাদ কর্মসূচিতে পুলিশের বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। আটক হয়েছেন ছয় জন।
সুনামগঞ্জ
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

বারো মাস ধরে বেতন না পাওয়া ও নতুন করে টেন্ডারের মাধ্যমে একই পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরুর প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে বিক্ষোভ করেছেন আউটসোর্সিংয়ে নিয়োগ পাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীরা। প্রতিবাদ কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। আটক হয়েছেন ছয় জন।

রোববার দুপুর ১২টার দিকে সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয় প্রাঙ্গণে এ ঘটনা ঘটে।

প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, গত বছরের মে মাসে এক বছরের জন্য আউটসোর্সিংয়ের ভিত্তিতে নিয়োগ পাওয়া ২৩৪ জন কর্মী ১২ মাস ধরে বেতন পাননি। এ অবস্থায় নতুন করে আবার টেন্ডার আহ্বান করেছে সিভিল সার্জন কার্যালয়।

অনেস্ট সিকিউরিটি সার্ভিসের মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত এই কর্মীরা বেতন এবং নতুন টেন্ডার আহ্বান আপাতত স্থগিত করার দাবিতে প্রতিবাদ করার সময় পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি চালিয়ে ছত্রভঙ্গ করে বলে অভিযোগ করেন তিনি। আন্দোলনকারী ৬ জনকে আটক করা হয় বলেও দাবি করেন তিনি।

জানতে চাইলে সুনামগঞ্জ জেলার পুলিশের অতিরিক্ত সুপার (সদর সার্কেল) মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘লাঠিচার্জ বা ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়নি। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে থেকে তাদের সরাতে গেলে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে দ্রুত চলে যান। এ সময় ৬ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে’।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন বলেন, ‘নতুন করে টেন্ডার আহ্বান একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া এবং এজন্য প্রশাসনিক আদেশও রয়েছে। আউটসোর্সিং এর মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্তদের বেতন নিয়ে সারাদেশেই সমস্যা রয়েছে এবং বিষয়টি দুঃখজনক’।

তিনি বলেন, ‘তাদের বেতনের বিষয়টি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের এখতিয়ারভূক্ত না। তাদের নিয়োগ হয়েছে আউটসোর্সিংয়ের ভিত্তিতে, যে প্রতিষ্ঠান তাদের নিয়োগ দিয়েছে, তারা মাসিক বেতন দেওয়ার কথা’।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, ‘সেই প্রতিষ্ঠানকে মন্ত্রণালয় থেকে টাকা দিতে দেরি হচ্ছে, তাই তারাও কর্মীদের বেতন দিচ্ছে না। আমরা সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে দিয়েছি এবং সে অনুযায়ী অর্থ ছাড় হলে কোম্পানিকে তা দেওয়া হবে’।

২০১৯ সালের ১ মে থেকে আউটসোর্সিংয়ের ভিত্তিতে ঢাকার অনেস্ট সিকিউরিটি সার্ভিসের মাধ্যমে সুনামগঞ্জের ১১টি উপজেলা ও জেলা সদরের সব হাসপাতাল ও সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে ২৩৪ জন চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগ দেওয়া হয়।

অনেস্ট সিকিউরিটি সার্ভিসের বক্তব্য জানতে দ্য ডেইলি স্টার তাদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তা সম্ভব হয়নি।

ছবি ক্যাপশন: ছবিটি গত বছর সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চতুর্থ শ্রেণী কর্মীদের নিয়োগের পর তাদের ফেসবুকে আপলোড করা হয়। সংগৃহিত ছবি।

Comments

The Daily Star  | English

UAE emerges as top remittance source for Bangladesh

Bangladesh received the highest remittance from the United Arab Emirates in the first 10 months of the outgoing fiscal year, well ahead of traditional powerhouses such as Saudi Arabia and the United States, central bank figures showed.

9h ago