করোনাভাইরাস

বিশ্বে মৃত্যু ৪ লাখ ২ হাজার, যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ১০ হাজারের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে চার লাখ দুই হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৩১ লাখ মানুষ।
ব্রাজিলে পর্যাপ্ত সুরক্ষা পোশাক পরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির মরদেহ দাফন করা হচ্ছে। ৭ জুন ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে চার লাখ দুই হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৩১ লাখ মানুষ।

আজ সোমবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭০ লাখ ৯ হাজার ৬৫ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ২ হাজার ৭৩০ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৩১ লাখ ৪০ হাজার ৯২০ জন।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ লাখ ৪২ হাজার ৩৬৩ জন এবং মারা গেছেন ১ লাখ ১০ হাজার ৫১৪ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৬ হাজার ৩৬৭ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত রয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৯১ হাজার ৭৫৮ জন, মারা গেছেন ৩৬ হাজার ৪৫৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৮৩ হাজার ৯৫২ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন যুক্তরাজ্যে। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪০ হাজার ৬২৫ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৮৭ হাজার ৬২১ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২৩৯ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়াতেও। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৬৭ হাজার ৭৩ জন এবং মারা গেছেন ৫ হাজার ৮৫১ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ২৬ হাজার ২৭২ জন।

এ ছাড়া, ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৪১ হাজার ৫৫০ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ১৩৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩৪ হাজার ৯৯৮ জন, মারা গেছেন ৩৩ হাজার ৮৯৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৬৫ হাজার ৮৩৭ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯১ হাজার ১০২ জন, মারা গেছেন ২৯ হাজার ১৫৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭০ হাজার ৯৬১ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৮৫ হাজার ৭৫০ জন, মারা গেছেন ৮ হাজার ৬৮৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৬৯ হাজার ২২৪ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৭১ হাজার ৭৮৯ জন, মারা গেছেন ৮ হাজার ২৮১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩৪ হাজার ৩৪৯ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৭০ হাজার ১৩২ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৯২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৯৬৯ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৫৭ হাজার ৪৮৬ জন, মারা গেছেন ৭ হাজার ২০৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ২৩ হাজার ৮৪৮ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ হাজার ১৯১ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৯ হাজার ৪৩৪ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৬৫ হাজার ৭৬৯ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন ৮৮৮ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৯০৩ জন।

Comments

The Daily Star  | English

Pm’s India Visit: Dhaka eyes fresh loans from Delhi

India may offer Bangladesh fresh loans under a new framework, as implementation of the projects under the existing loan programme is proving difficult due to some strict loan conditions.

6h ago