খুলনা সদর থানার ওসি প্রত্যাহার, কর্মবিরতি তুলে নিলেন চিকিৎসকরা

দায়িত্বে অবহেলা করায় এবং চিকিৎসকদের চাপের মুখে খুলনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম বাহারকে প্রত্যাহার (ক্লোজড) করা হয়েছে।
Khulna Map
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

দায়িত্বে অবহেলা করায় এবং চিকিৎসকদের চাপের মুখে খুলনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম বাহারকে প্রত্যাহার (ক্লোজড) করা হয়েছে।

আজ রোববার দুপুরের দিকে ওই আদেশ দেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি) কমিশনার।

আসলাম বাহার ছিলেন খুলনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত)। তবে ওসি না থাকায় ওই পদে তিনি দায়িত্ব পালন করতেন।

কেএমপি’র মুখপাত্র ও উপপুলিশ কমিশনার শেখ মনিরুজ্জামান বলেন, ‘খুলনা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আসলাম বাহারের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় তাঁকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে রিজার্ভ পুলিশে সংযুক্ত করা হয়েছে। আর ওই থানায় ওসি হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে হরিণটানা থাকার ওসি আশরাফুল আলমকে।’

খুলনার গল্লামারী এলাকায় অবস্থিত রাইসা ক্লিনিকের মালিক চিকিৎসক রকিব খানের মারা যাওয়া এক রোগীর স্বজনদের হামলায় মৃত্যু হয়। খুলনার চিকিৎসকরা ওই ঘটনার প্রতিবাদে ও আসামিদের গ্রেপ্তার এবং সদর থানার ওসিকে প্রত্যাহারের দাবিতে বুধবার অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ডাক দেন। তবে, প্রথম দিনেই এজাহারভুক্ত চার আসামির মধ্যে তিনজনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হওয়ায় বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করে তা ৭২ ঘণ্টার জন্য স্থগিত করা হয়। ওই সময়ের মধ্যে এজাহারভুক্ত অন্য আসামিকে গ্রেপ্তার, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) প্রত্যাহার ও চিকিৎসকের মামলাটি দ্রুত বিচার আইনে না নেওয়া হলে আবারও কর্মবিরতি পালন করার হুমকি দেন চিকিৎসকরা। তাদের ও বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যেই মামলার এজাহারভুক্ত সব আসামি গ্রেপ্তার করা হয় এবং আজ দুপুরে ওসিকে প্রত্যাহার করা হয়।

এরপর খুলনায় চিকিৎসকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ দুপুরে খুলনা বিএমএ ভবনে এক জরুরি বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত নেন বিএমএ খুলনা জেলা শাখার নেতারা।

বিএমএ খুলনার সভাপতি শেখ বাহারুল আলম ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, ‘নিহত চিকিৎসক রকিব খান বাগেরহাট সরকারি ম্যাটস এর অধ্যক্ষ। তিনি রাষ্ট্রের একজন কর্মচারী, তাই তাকে হত্যার ঘটনায় রাষ্ট্রের উচিত ছিল হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ নেওয়া। কিন্তু, তা না হওয়ায় বিএমএ কে আন্দোলনে নামতে হয়েছে। তবে, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দুটি দাবি পূরণ হওয়ায় চিকিৎসকরা কর্মবিরতির কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ভবিষ্যতে চিকিৎসকদের সঙ্গে এমন ধরণের আর কোনো আচরণ হবে না বলে আমি আশা করি।’

গত শনিবার দুপুরের দিকে রূপসা উপজেলার পালেরহাট এলাকা থেকে চিকিৎসক রকিব হত্যা মামলার দুই নম্বর আসামি আব্দুল কুদ্দুসকে গ্রেপ্তারের মধ্য দিয়ে এজাহারভুক্ত চার আসামির সবাই গ্রেপ্তার হয়। এরমধ্যে প্রধান আসামি জমির শেখ ও অজ্ঞাতনামা আসামিদের মধ্যে খাদিজা বেগম আদালতের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেন। গ্রেপ্তার হওয়া অন্য চার আসামির তিন জনের দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। 

খুলনায় গত ১৪ জুন রাইসা ক্লিনিকে শিউলি বেগম নামের এক নারীর অস্ত্রপচারের মাধ্যমে সন্তান প্রসব করানো হয়। প্রথম দিকে সন্তান ও মায়ের শরীর ভালো থাকলেও রাতে শিউলি বেগমের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। সকালে ওই ক্লিনিকের চিকিৎসক ও পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী শিউলি বেগমকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন স্বজনরা। কিন্ত, পথেই মারা যান শিউলি বেগম। এ ঘটনায় ১৫ জুন রাতে শিউলি বেগমের স্বজনরা রাইসা ক্লিনিকের মালিক চিকিৎসক আবদুর রকিব খানকে মারধর করেন। পরে মস্তিস্কে রক্তক্ষরণের কারণে খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রকিব খান।

ওই ঘটনায় রকিব খানের ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম খান বাদী হয়ে খুলনা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় শিউলি বেগমের ভাই, স্বামীসহ পরিবারের সদস্যদের আসামি করা হয়।

আরও পড়ুন: 

খুলনায় চিকিৎসকদের কর্মবিরতি শর্তসাপেক্ষে স্থগিত

Comments

The Daily Star  | English

Ushering Baishakh with mishty

Most Dhakaites have a sweet tooth. We just cannot do without a sweet end to our meals, be it licking your fingers on Kashmiri mango achar, tomato chutney, or slurping up the daal (lentil soup) mixed with sweet, jujube and tamarind pickle.

1h ago