করোনাভাইরাস

মৃত্যু ৪ লাখ ৯৪ হাজার, আক্রান্ত ৯৮ লাখের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে চার লাখ ৯৪ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৪৯ লাখ মানুষ।
ব্রাজিলে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবকালীন মানুষের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। ৬ জুন ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে চার লাখ ৯৪ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৪৯ লাখ মানুষ।

আজ শনিবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮ লাখ ১ হাজার ৫৭২ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৯৪ হাজার ১৮১ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৪৯ লাখ ৪৫ হাজার ৫৫৭ জন।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ লাখ ৬৭ হাজার ৫৫৪ জন এবং মারা গেছেন ১ লাখ ২৫ হাজার ৩৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৭০ হাজার ৮০৯ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ লাখ ৭৪ হাজার ৯৭৪ জন, মারা গেছেন ৫৫ হাজার ৯৬১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৯৫ হাজার ৪৮ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে তৃতীয়তে রয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৩ হাজার ৪৯৮ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ১০ হাজার ৮৩৬ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩৬৩ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়া ও পেরুতেও। রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ১৯ হাজার ৯৩৬ জন এবং মারা গেছেন ৮ হাজার ৭৭০ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৮৩ হাজার ৫২৪ জন। পেরুতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭২ হাজার ৩৬৪ জন এবং মারা গেছেন ৮ হাজার ৯৩৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৯ হাজার ৮০৬ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৯০ হাজার ৪০১ জন, মারা গেছেন ১৫ হাজার ৩০১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৮৫ হাজার ৬৩৭ জন।

ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৪৭ হাজার ৯০৫ জন, মারা গেছেন ২৮ হাজার ৩৩৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩৯ হাজার ৯৬১ জন, মারা গেছেন ৩৪ হাজার ৭০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৮৭ হাজার ৬১৫ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯৯ হাজার ৪৭৩ জন, মারা গেছেন ২৯ হাজার ৭৮১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৫ হাজার ৭৭৩ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯৪ হাজার ৩৬ জন, মারা গেছেন ৮ হাজার ৯৬৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৭৭ হাজার ১৪৯ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৭ হাজার ৭২৪ জন, মারা গেছেন ১০ হাজার ২৩৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৭৭ হাজার ৮৫২ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯৪ হাজার ৫১১ জন, মারা গেছেন ৫ হাজার ৬৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৬৭ হাজার ১৯৮ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ হাজার ৭২৫ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৪১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৯ হাজার ৫৮০ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন ১ হাজার ৬৬১ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৫৩ হাজার ১৩৩ জন।

Comments

The Daily Star  | English

Babar Ali: Another Bangladeshi summits Mount Everest

Before him, Musa Ibrahim (2010), M.A. Muhit (2011), Nishat Majumdar (2012), and Wasfia Nazreen (2012) successfully summited Mount Everest. Mohammed Khaled Hossain summited Mount Everest in 2013 but died on his way down

37m ago