রিয়ালের সঙ্গে ব্যবধান ১ পয়েন্টে নামিয়ে আনল বার্সা

এস্পানিয়লকে হারাতে অবশ্য ঘাম ঝরাতে হয়েছে কিকে সেতিয়েনের শিষ্যদের।
barcelona
ছবি: এএফপি

ন্যূনতম ব্যবধানে জিতে স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা ধরে রাখার দৌড়ে টিকে থাকল বার্সেলোনা। ডার্বি ম্যাচে পয়েন্ট তালিকার তলানির দল এস্পানিয়লকে হারাতে অবশ্য ঘাম ঝরাতে হয়েছে কিকে সেতিয়েনের শিষ্যদের।

ন্যু ক্যাম্পে বুধবার রাতে নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের ১-০ গোলে হারিয়েছে লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। দলটির জয়ের নায়ক উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। চলতি আসরে এটি তার ১৫তম গোল।

ঘটনাবহুল লড়াইয়ে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দশ জনের দলে পরিণত হয় দুদল। লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন বার্সা ফরোয়ার্ড আনসু ফাতি ও এস্পানিয়ল মিডফিল্ডার পল লোজানো। এর কিছুক্ষণ পরই ম্যাচে ব্যবধান গড়ে দেন সুয়ারেজ।

নিজেদের মাঠে বল দখলে কাতালানরা এগিয়ে থাকলেও আক্রমণ ও সুযোগ তৈরিতে প্রাধান্য ছিল অতিথিদের। প্রথমার্ধের শেষদিকে গোলও পেয়ে যেতে পারত তারা। কিন্তু ভাগ্য সহায় ছিল না।

দিদাক ভিলার ক্রস বিপদমুক্ত করতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালের দিকে ঠেলে দিয়েছিলেন ক্লেমোঁ লংলে। কিন্তু বল গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনের গায়ে লেগে ফিরে আসে। এরপর আলগা বলে শট নিয়েছিলেন এস্পানিয়ল ডিফেন্ডার ভিলা। কিন্তু তা পোস্টে লাগলে হাঁফ ছেড়ে বাঁচে বার্সা।

বিরতির পর নেলসন সেমেদোর বদলি হিসেবে নামা ফাতি পাঁচ মিনিটও থাকতে পারেননি মাঠে। প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার ফার্নান্দো কালেরোকে বিপজ্জনক ফাউল করায় প্রথমে তাকে হলুদ কার্ড দেখানো হয়েছিল। পরে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে সরাসরি লাল তাকে কার্ড দেখান রেফারি।

মিনিট তিনেক পর ঘটে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। বার্সা ডিফেন্ডার জেরার্দ পিকেকে ফাউল করে ঠিক একইভাবে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন লোজানো। তাকেও প্রথমে হলুদ কার্ড দেখানো হয়েছিল। পরে ভিএআরের সহায়তায় মত পাল্টান রেফারি।

৫৬তম মিনিটে ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেওয়া গোলটি পায় বার্সেলোনা। ডি-বক্সের ভেতরে আঁতোয়ান গ্রিজমানের ব্যাকহিলে লিওনেল মেসির শট প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে প্রতিহত হয়। এরপর আলগা বলে শট নিয়ে জালে পাঠান অরক্ষিত সুয়ারেজ।

এককভাবে বার্সার ইতিহাসের তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতার আসনে বসেছেন সুয়ারেজ। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলে তার গোল দাঁড়িয়েছে ১৯৫টিতে। তিনি পেছনে ফেলেছেন লাজলো কুবালাকে (১৯৪ গোল)। 

এই জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে ব্যবধান এক-এ নামিয়ে এনেছে বার্সা। ৩৫ ম্যাচে তাদের অর্জন ৭৬ পয়েন্ট। এক ম্যাচ কম খেলা জিনেদিন জিদানের রিয়ালের সংগ্রহ ৭৭ পয়েন্ট।

আগামীকাল শুক্রবার রাতে অবশ্য ব্যবধান ফের বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে লস ব্লাঙ্কোসদের। ঘরের মাঠ আলফ্রেদো দি স্তেফানো স্টেডিয়ামে তারা আতিথ্য দেবে আলাভেসকে।

অন্যদিকে, অবনমন হয়েছে স্পেনের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী ক্লাব এস্পানিয়লের। ৩৫ ম্যাচ শেষে তাদের পয়েন্ট মাত্র ২৪। ১৯৯৩ সালের পর এই প্রথম স্পেনের পেশাদার ফুটবলের দ্বিতীয় স্তরে নেমে গেছে তারা।

Comments

The Daily Star  | English

Sundarbans cushions blow

Cyclone Remal battered the coastal region at wind speeds that might have reached 130kmph, and lost much of its strength while sweeping over the Sundarbans, Met officials said. 

6h ago