লা লিগার শিরোপা পুনরুদ্ধার করল রিয়াল

স্পেনের পেশাদার ফুটবলের শীর্ষ স্তরে এটি তাদের রেকর্ড ৩৪তম শিরোপা।
real madrid
ছবি: রয়টার্স

দুই অর্ধে দুবার লক্ষ্যভেদ করলেন রিয়াল মাদ্রিদ স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা। শেষ দিকে ভিয়ারিয়াল এক গোল শোধ করলেও জিনেদিন জিদানের দলের জয় আটকাতে পারল না। পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছেড়ে স্প্যানিশ লা লিগার শিরোপা ঘরে তোলার উৎসবে মাতল লস ব্লাঙ্কোসরা।

বৃহস্পতিবার রাতে ঘরের মাঠ আলফ্রেদো ডি স্তেফানো স্টেডিয়ামে ভিয়ারিয়ালকে ২-১ গোলে হারিয়ে লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রিয়াল। স্পেনের পেশাদার ফুটবলের শীর্ষ স্তরে এটি তাদের রেকর্ড ৩৪তম শিরোপা। ২০১৬-১৭ মৌসুমের পর প্রথমবারের মতো সেরার মুকুট জিতে নিয়েছে সফলতম স্প্যানিশ ক্লাবটি।

এই জয়ে ৩৭ ম্যাচ শেষে রিয়ালের পয়েন্ট বেড়ে হয়েছে ৮৬। রাতের আরেক ম্যাচে গেল দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা নিজেদের মাঠে ২-১ ব্যবধানে হেরে গেছে ওসাসুনার কাছে। ৭৯ পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে।

শিরোপা উদযাপনের মঞ্চ তৈরি ছিল রিয়ালের জন্য। সহজ সমীকরণ সামনে রেখে দারুণ পারফরম্যান্স উপহারও দিয়েছে দলটি। শেষ দিকে ঘুরে দাঁড়ালেও তাদের অপ্রতিরোধ্য যাত্রায় বাধা হতে পারেনি ভিয়ারিয়াল। তাতে এবারের আসরে টানা দশম জয়ের স্বাদ নিয়েছে স্বাগতিকরা।

শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলা রিয়াল ২৯তম মিনিটে এগিয়ে যায়। মাঝমাঠে বল দখলে নিয়ে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার কাসেমিরো খুঁজে নেন লুকা মদ্রিচকে। এই ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার খানিকটা এগিয়ে ডি-বক্সের ভেতরে পাস দেন ফরাসি তারকা বেনজেমাকে। নিখুঁত শটে অতিথি গোলরক্ষকের দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে বল জালে পাঠান তিনি।

৭৭তম মিনিটে সফল স্পট-কিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করে রিয়ালের জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন বেনজেমা। সার্জিও রামোস ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হওয়ায় পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন রেফারি।

সেসময় অবশ্য তৈরি হয়েছিল বেশ নাটকীয়তা। প্রথমে স্পট-কিক রিয়াল অধিনায়ক নেন রামোস। তিনি গোলমুখে শট না নিয়ে বল সামনে বাড়িয়ে দেন। ডি-বক্সের বাইরে থেকে দৌড়ে এসে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন বেনজেমা। কিন্তু বাতিল হয় গোলটি। কারণ, রামোস বলে পা ছোঁয়ানোর আগেই বেনজেমা ডি-বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন।

তাই ফের স্পট-কিক নিতে হয় রিয়ালকে। দ্বিতীয় দফায় অবশ্য বাড়তি কোনো কৌশলের আশ্রয় নেয়নি তারা। গড়ানো শটে চলতি লিগে নিজের ২১তম গোলটি করেন বেনজেমা। গোলদাতাদের তালিকায় তিনি আছেন দুইয়ে। ২৩ গোল নিয়ে তার সামনেই আছেন বার্সার লিওনেল মেসি।

ছয় মিনিট পর ম্যাচের স্কোরলাইন ২-১ করেন ভিসেন্তে ইবোরা। ডান দিক থেকে মারিও গ্যাসপারের ক্রসে হেড করে রিয়ালের জাল কাঁপান এই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার।

ব্যবধান কমানোর পর সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে ভিয়ারিয়াল। কিন্তু ৮৮তম মিনিটে দুটি দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করে দলটি। সতীর্থের কর্নারে বিপজ্জনক জায়গায় বল পেয়েও ব্রুনো সোরিয়ানো পা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হওয়ার পর উড়িয়ে মারেন সোফিয়ান চাকলা।

দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে মার্কো আসেনসিও লক্ষ্যভেদ করেছিলেন। তবে ভিএআরের সাহায্যে গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি। উল্টো তিনি হ্যান্ডবলের বাঁশি বাজান। কারণ, আসেনসিওকে পাস দেওয়ার আগে বল লেগেছিল বেনজেমার হাতে।

Comments

The Daily Star  | English
Road crash deaths during Eid rush 21.1% lower than last year

Road Safety: Maladies every step of the way

The entire road transport sector has long been plagued by multifaceted problems, which are worsening every day amid sheer apathy from the authorities responsible for ensuring road safety.

4h ago