স্টোকস-সিবলির সেঞ্চুরিতে চাপে উইন্ডিজ

আগে বোলিং নিয়েই সাউদাম্পটনে দারুণ জয় পেয়েছিল উইন্ডিজ। তেমন কিছু পুনরাবৃত্তি করতে ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জিতে বোলিং নিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। উইকেটেও বোলারদের সহায়কই ছিল। কিন্তু দুই ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন স্টোকস ও ডম সিবলির অসাধারণ ব্যাটিংই এবার আর তা হয়নি। দুই জনই তুলে নিয়েছেন সেঞ্চুরি। তাতে বড় সংগ্রহই পেয়েছে স্বাগতিকরা।
ছবি: এএফপি

আগে বোলিং নিয়েই সাউদাম্পটনে দারুণ জয় পেয়েছিল উইন্ডিজ। তেমন কিছু পুনরাবৃত্তি করতে ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জিতে বোলিং নিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। উইকেটেও বোলারদের সহায়কই ছিল। কিন্তু দুই ইংলিশ ব্যাটসম্যান বেন স্টোকস ও ডম সিবলির অসাধারণ ব্যাটিংই এবার আর তা হয়নি। দুই জনই তুলে নিয়েছেন সেঞ্চুরি। তাতে বড় সংগ্রহই পেয়েছে স্বাগতিকরা।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে আগের দিনের ৩ উইকেটে ২০৭ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামা ইংলিশ দল এদিন ৯ উইকেটে ৪৬৯ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে। জবাবে নিজেদের ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি ক্যারিবিয়ানদের। জন ক্যাম্পবেলের উইকেট হারিয়ে ৩২ রান সংগ্রহ করেছে উইন্ডিজ। ব্যক্তিগত ১২ রানে স্যাম কারানের বলে এলবিডাব্লিউর ফাঁদে পড়েন এ ক্যারিবিয়ান। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ৬ ও নাইটওয়াচম্যান আলজারি জোসেফ ১৪ রানে উইকেটে আছেন।

আগের দিনই ক্যারিবিয়ানদের ভোগানো দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান স্টোকস ও সিবলির শুরুটা এদিনও ছিল দুর্দান্ত। ৮৬ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামা সিবলি প্রথম সেশনেই সেঞ্চুরি তুলে নেন। স্টোকস অবশ্য সেঞ্চুরি তোলেন মধ্যাহ্ন বিরতির পর। এ দুই ব্যাটসম্যান ২৬০ রানের জুটি। তাতেই চাপে পড়ে যায় উইন্ডিজ। যদিও এ জুটি ভাঙার পর আর কোনো ইংলিশ ব্যাটসম্যান হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারেননি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট তুলে নিতে থাকে দলটি। শেষ বিকেলের কিছু আগে ৯ উইকেটে ৪৬৯ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিকরা।

আগের টেস্টে নেতৃত্ব দেওয়া স্টোকস দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৭৬ রানের ইনিংস খেলেন। ৩৫৬ বলে ধৈর্যশীল এ ইনিংসে চার মেরেছেন ১৭টি। সঙ্গে রয়েছে দুটি ছক্কার মার। তবে মাটি কামড়ে পড়ে থাকা সিবলির ইনিংস ছিল আরও ধৈর্যশীল। ১২০ রানের ইনিংসটি তিনি খেলেছেন ৩৭২ বলে। মাত্র ৫টি বাউন্ডারি এসেছে তার ব্যাট থেকে। এছাড়া জস বাটলারের ব্যাট থেকে আসে ৪০ রান।

ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে এদিনের সেরা বোলার ছিলেন রোস্টন চেইস। ১৭২ রানের খরচায় পেয়েছেন ৫টি উইকেট। ২টি উইকেট পেয়েছেন কেমার রোচ। আলজারি জোসেফ ও অধিনায়ক হোল্ডারের শিকার ১টি করে। প্রথম টেস্টের নায়ক শেনন গ্যাব্রিয়েল অবশ্য এ ইনিংসে কিছু করতে পারেনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: (দ্বিতীয় দিন শেষে)

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: (আগের দিন ২০৭/৩) ১৬২ ওভারে ৪৬৯/৯ ইনিংস ঘোষণা (সিবলি ১২০, স্টোকস ১৭৬, পোপ ৭, বাটলার ৪০, ওকস ০, কারান ১৭, বেস ৩১*, ব্রড ১১*; রোচ ২/৫৮, গ্যাব্রিয়েল ০/৭৯, জোসেফ ১/৭০, হোল্ডার ১/৭০, চেইস ৫/১৭২, ব্র্যাথওয়েট ০/৯)

উইন্ডিজ প্রথম ইনিংস: ১৪ ওভারে ৩২/১ (ব্র্যাথওয়েট ৬*, ক্যাম্পবেল ১২, জোসেফ ১৪*; ব্রড ০/১৪, ওকস ০/২)

Comments