খেলা

মেসির নজরকাড়া গোল, নাপোলিকে হারিয়ে শেষ আটে বার্সা

নাপোলিকে বিদায় করে কাতালানরা পা রেখেছে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে।
messi
ছবি: রয়টার্স

প্রথম লেগে মূল্যবান অ্যাওয়ে গোলের কারণে ফিরতি লেগ গোলশূন্যভাবে শেষ হলেই চলত বার্সেলোনার। তবে নাপোলির বিপক্ষে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে কিকে সেতিয়েনের শিষ্যরা। তারা পা রেখেছে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে। কাতালানদের জয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন লিওনেল মেসি। প্রতিপক্ষের তিন ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে নিখুঁত শটে চোখ ধাঁধানো গোল করার পর পেনাল্টিও আদায় করে নেন তিনি।

শনিবার রাতে শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে ৩-১ গোলে জিতেছে বার্সা। স্প্যানিশ ক্লাবটির গোলদাতারা হলেন ক্লেমোঁ লংলে, মেসি ও লুইস সুয়ারেজ। অতিথিদের হয়ে ব্যবধান কমান লরেঞ্জো ইনসিনিয়ে।

ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলির মাঠে আগের লেগটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-২ গোলের অগ্রগামিতায় শেষ আট নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা।

ম্যাচের প্রথম সুযোগটি পেয়েছিল নাপোলি। তৃতীয় মিনিটে বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড ড্রিস মার্টেন্সের শট বাধা পায় পোস্টে। এই হতাশার রেশ কাটতে না কাটতেই পিছিয়ে পড়ে সফরকারীরা। ইভান রাকিতিচের কর্নারে হেড করে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন বার্সার ফরাসি ডিফেন্ডার লংলে।

২৩তম মিনিটে নজরকাড়া গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। সুয়ারেজের ক্রস ধরে ডি-বক্সে ঢোকার সময় নাপোলির তিন ডিফেন্ডার তাকে ঘিরে ফেলেছিলেন। পায়ের জাদুতে তাদেরকে ছিটকে ফেলেন তিনি। এগোতে নিয়ে একবার পড়ে গেলেও ফের বলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। এরপর শরীরের ভারসাম্য হারানোর আগে বাঁ পায়ে কোণাকুণি শট করেন তিনি। দূরের পোস্ট দিয়ে বল পৌঁছায় জালে।

চলতি আসরে এটি মেসির তৃতীয় গোল। ক্যাম্প ন্যুতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজের শেষ ছয় ম্যাচে ১২টি গোলে সরাসরি অবদান রেখেছেন বার্সা অধিনায়ক। রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অরজয়ী তারকা গোল করেছেন নয়টি, সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন আরও তিনটি।

সাত মিনিট পর আবারও লক্ষ্যভেদ করেছিলেন মেসি। কিন্তু ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের ক্রস বুক দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার সময় বল তার হাতে লেগেছিল। পরবর্তীতে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোল বাতিল করেন রেফারি।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে দুই দল পায় একটি করে পেনাল্টি। প্রথম মিনিটে সফল স্পট কিকে বল জালে জড়ান উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার সুয়ারেজ। কালিদু কোলিবালি মেসিকে ফাউল করায় ভিএআরের মাধ্যমে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছিল।

পঞ্চম মিনিটে স্কোরলাইন ৩-১ করেন ইতালিয়ান ফরোয়ার্ড ইনসিনিয়ে। মার্টেন্সকে বার্সার রাকিতিচ ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

এগিয়ে থাকায় দ্বিতীয়ার্ধে বার্সা খোলসে বন্দি হয়ে পড়ে। সেই সুযোগে তাদের রক্ষণে চাপ তৈরি করে নাপোলি। কিন্তু অনেকগুলো আক্রমণ করেও গোল পায়নি তারা। ৮১তম মিনিটে বদলি স্ট্রাইকার আর্কাদিউস মিলিক দারুণ হেডে জাল খুঁজে নিলেও অফসাইডের কারণে বাতিল হয় গোলটি।

কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মান বুন্ডেসলিগার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখের মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের দা লুজ স্টেডিয়ামে।

Comments

The Daily Star  | English

MV Abdullah passing through high-risk piracy area

Precautionary safety measures in place, Italian Navy frigate escorting it

41m ago