হংকংয়ে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার মিডিয়া টাইকুন জিমি লাই

হংকংয়ের বিজনেস টাইকুন জিমি লাইকে বিদেশি শক্তির সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার সংবাদপত্রের অফিসেও অভিযান চালানো হয়েছে।
হংকংয়ে বিতর্কিত জাতীয় নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার মিডিয়া টাইকুন জিমি লাই। ছবি: রয়টার্স

হংকংয়ের বিজনেস টাইকুন জিমি লাইকে বিদেশি শক্তির সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার সংবাদপত্রের অফিসেও অভিযান চালানো হয়েছে।

বিবিসি জানায়, গত জুনে চীনের আরোপ করা বিতর্কিত জাতীয় নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার হওয়াদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তি লাই।

হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থি ও গত বছরের গণআন্দোলনের সমর্থক ছিলেন লাই। এর আগে, ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাজ্যের নাগরিকত্ব থাকা ৭১ বছর বয়সী লাইয়ের বিরুদ্ধে বেআইনি সমাবেশ ও হুমকি সৃষ্টি করার অভিযোগ আনা হয়। তবে, ওই অভিযোগে জামিনে ছিলেন তিনি।

সোমবার, চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জিমি লাইকে ‘দাঙ্গার সমর্থক’ হিসেবে উল্লেখ করে। পাশাপাশি, তার প্রকাশনাগুলো ‘ঘৃণার প্ররোচণা, গুজব ছড়ানো ও অনেক বছর ধরে হংকংয়ের কর্তৃপক্ষ ও মূলখণ্ডের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করছিল’ বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

গ্লোবাল টাইমস আরও জানায়, লাইয়ের দুই ছেলে ও তার মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান নেক্সট ডিজিটাল লিমিটেডের দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  

সোমবার, সংবাদমাধ্যম অ্যাপল ডেইলির ভবনে বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাকে অনুসন্ধান চালাতে দেখা যায়। এক পর্যায়ে জিমি লাইকে হাতকড়া পরানো অবস্থায় দেখা গেছে।

ফেসবুকে এক পোস্টে হংকং পুলিশ জানায়, ৩৯ থেকে ৭২ বছর বয়সী সাত জনকে ‘বিদেশী বাহিনীর সঙ্গে আঁতাত করার সন্দেহে’ ও অন্যান্য অপরাধে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে ওই পোস্টে জিমি লাইয়ের নাম জানানো হয়নি।

 

Comments

The Daily Star  | English