শীর্ষ খবর
মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ড

গণশুনানিতে ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান নিহত হওয়ার ঘটনা তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির গণশুনানিতে ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে।
সিনহা মো. রাশেদ খান। ছবি: সংগৃহীত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান নিহত হওয়ার ঘটনা তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির গণশুনানিতে ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

আজ রোববার সকাল সাড়ে ১১টা ২৫ মিনিটে গণশুনানি শুরু হয় এবং শেষ হয় বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে। টেকনাফের শামলাপুর ২৩ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ওই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

জানা গেছে, এ ঘটনার সাক্ষ্য দেওয়ার জন্যে ১২ জন তাদের নাম তালিকাভুক্ত করেছিলেন। তবে, তাদের একজন অসুস্থ থাকার কারণে তার সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়নি। তাকে বাদ দিয়ে বাকি ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করে তদন্ত কমিটি।

গণশুনানি দেখতে ভিড় জমায় উৎসুক জনতা। ছবি: স্টার

বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে তাদের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। গণশুনানি দেখার জন্য সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিপুল সংখ্যক মানুষ সেখানে ভিড় জমায়।

সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান সরকারের যুগ্ম সচিব এবং চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. মিজানুর রহমান সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত প্রতিবেদন নির্ধারিত সময় ২৩ আগস্টের মধ্যে জমা দেব বলে আশা করছি। তদন্তের কাজ দ্রুত এগিয়ে নিচ্ছি। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে সরকারি বিভিন্ন সংস্থাসহ যাদের যাদের কমিটি প্রয়োজন মনে করেছে তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। এ পর্যন্ত আমরা মোট ৬০ জনের বক্তব্য নিয়েছি। তদন্ত কমিটির চার সদস্য বিভিন্ন স্থান সরেজমিনে পরিদর্শন করেছি। কমিটির সকল সদস্য সমন্বয় করে কাজ করছি। আমাদের মধ্যে কোনো সমন্বয়হীনতা নেই।’

আরও পড়ুন:

সিনহার মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত কমিটির গণশুনানি চলছে

সিনহার মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত কমিটির গণশুনানি আগামীকাল

Comments