'চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বড় খেলোয়াড়দের টুর্নামেন্ট'

অসাধারণ এক জয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে নাম লিখিয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। যদিও প্রতিপক্ষ থেকে কাগজে কলমে এগিয়ে ছিল তারাই। তারপরও এক লেগের ফুটবল বলেই অনিশ্চয়তা কম ছিল না। শেষ পর্যন্ত সহজেই জিতেছে দলটি। আর এ জয়ের মূল কারিগর দলের সেরা তারকারা। বিশেষকরে নেইমার, কিলিয়ান এমবাপে, আনহেল দি মারিয়ারা খেলেছেন দুর্দান্ত। তাই আসরটিকে বড় খেলোয়াড়দের টুর্নামেন্ট বললেন পিএসজি কোচ টমাস টুখেল।
ছবি: এএফপি

অসাধারণ এক জয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে নাম লিখিয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। যদিও প্রতিপক্ষ থেকে কাগজে কলমে এগিয়ে ছিল তারাই। তারপরও এক লেগের ফুটবল বলেই অনিশ্চয়তা কম ছিল না। শেষ পর্যন্ত সহজেই জিতেছে দলটি। আর এ জয়ের মূল কারিগর দলের সেরা তারকারা। বিশেষকরে নেইমার, কিলিয়ান এমবাপে, আনহেল দি মারিয়ারা খেলেছেন দুর্দান্ত। তাই আসরটিকে বড় খেলোয়াড়দের টুর্নামেন্ট বললেন পিএসজি কোচ টমাস টুখেল।

কোয়ার্টার ফাইনালে পিছিয়ে পড়েও দলকে জয় এনে দেওয়ার মূল কারিগর ছিলেন নেইমার। অবশ্য দারুণ সহায়তা পেয়েছিলেন এমবাপের কাছ থেকে। নিষেধাজ্ঞায় সে ম্যাচে ছিলেন না দি মারিয়া। ফিরলেন সেমি-ফাইনালে। আর ফিরেই ফাইনালে ওঠার নায়ক তিনি। এ ম্যাচেও দারুণ খেলেছেন নেইমার-এমবাপেরা। সবমিলিয়ে দলের সেরা তারকাদের হাত ধরেই এমন জয়। তাই টুখেল বলতেই পারেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বড় খেলোয়াড়দের টুর্নামেন্ট। তাতে দারুণ উচ্ছ্বসিত এ কোচ, 'এটা অবিশ্বাস্য! আমরা এখন এখানে ফাইনাল খেলব এবং জেতার জন্য।'

নিজেদের পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়ন করেই জয় পেয়েছেন বলে জানালেন পিএসজি কোচ, 'আমাদের পরিকল্পনা ছিল ম্যাচের নীতিগুলো ঠিক রাখা, স্পেসগুলো নিয়ন্ত্রণ করা এবং দি মারিয়া, এমবাপে এবং নেইমারের গতি ব্যবহার করা। এটা (চ্যাম্পিয়ন্স লিগ) বড় খেলোয়াড়দের প্রতিযোগিতা। তাদের আরাম দিতে হবে। আমাদের প্রতিপক্ষের সঙ্গে খুব বেশি খাপ খাওয়াতে হবে না, আমাদের নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করতে হবে। দলটি তার ক্ষুধা দেখিয়েছে এবং একসঙ্গে পরিশ্রম করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে।'

অথচ ম্যাচের আগে নিজে বেশ চাপে ছিলেন পিএসজি। তবে ম্যাচে তার ছিটেফোঁটাও দেখা যায়নি নেইমার-এমবাপে-দি মারিয়াদের। টুখেলের ভাষায়, 'আমি অনেক নার্ভাস ছিলাম। হ্যাঁ, আমি চাপ অনুভব করেছি। তবে আমার দলে এমন খেলোয়াড় রয়েছেন যারা এসব চাপ নিয়ে অভ্যস্ত এবং তারা এটা ভালোবাসে। ফুটবলে আপনি কখনোই নিশ্চিত থাকবেন না। তবে আমরা খুব ভালো লড়াই করেছি। এবং এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের সঠিক মনোযোগ ছিল।'

সেমি-ফাইনালের লক্ষ্য পার হয়েছে দলটির। ইতিহাসে প্রথম বারের মতো। এবার তাদের লক্ষ্য ফাইনাল। আর তার জন্য প্রস্তুত টুখেলের দল। তবে এ ম্যাচটিই তার কোচিং ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন তিনি, 'অবশ্যই রোববার আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হব।'

সে ম্যাচে তাদের সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ বায়ার্ন মিউনিখ। কারণ দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে দলটি। তবে চমক দেখেনো অলিম্পিক লিঁও-ও কম যায়না। যে কোনো কিছুই হতে পারে বলে মনে করেন টুখেল, 'আগামীকাল আমি ম্যাচটি দেখব এবং উপভোগ করব। আমার খেলোয়াড় এবং স্টাফদের সঙ্গে। আমরা জানি বায়ার্ন ফেভারিট কিন্তু এটা ফুটবল।'

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

7h ago