আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া-চীনের পর হাইপারসনিক প্রযুক্তিতে সফল ভারতও

যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের পর বিশ্বের চতুর্থ দেশ হিসেবে হাইপারসনিক প্রযুক্তির পরীক্ষায় সফল হয়েছে ভারত। গতকাল সোমবার দেশটিতে শব্দের চেয়ে প্রায় ছয় গুণ দ্রুতগতির চালকহীন আকাশযান হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকলের (এইচএসটিডিভি) পরীক্ষা চালানো হয়।
চালকহীন আকাশযান হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকলের (এইচএসটিডিভি) পরীক্ষায় সফল ভারতও। ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের পর বিশ্বের চতুর্থ দেশ হিসেবে হাইপারসনিক প্রযুক্তির পরীক্ষায় সফল হয়েছে ভারত। গতকাল সোমবার দেশটিতে শব্দের চেয়ে প্রায় ছয় গুণ দ্রুতগতির চালকহীন আকাশযান হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকলের (এইচএসটিডিভি) পরীক্ষা চালানো হয়।

আজ ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল সকাল ১১টা ৩ মিনিটে উড়িষ্যা উপকূলে চালকহীন আকাশযানটির পরীক্ষা চালিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (ডিআরডিও)।

স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি শব্দের চেয়ে ছয় গুণ গতিবেগে (প্রতি সেকেন্ডে প্রায় দুই কিলোমিটার গতিতে) ২২ থেকে ২৪ সেকেন্ডের জন্য উৎক্ষেপণ করা হয়। একটি অগ্নি ক্ষেপণাস্ত্রকে এটি ভূমি থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার উঁচুতে নিয়ে যায়।

ডিআরডিও প্রধান ড. সতেশ রেড্ডি বলেন, ‘এটি ভারতের একটি বড় প্রযুক্তিগত অগ্রগতি। এই পরীক্ষা আরও অনেক বেশি জটিল প্রযুক্তি, উপাদান ও হাইপারসনিক যানবাহন উন্নয়নের রাস্তা খুলে দিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে ভারত সেই সব নির্দিষ্ট কয়েকটি দেশের ক্লাবে ঢুকে পড়ল, যাদের এই প্রযুক্তি আছে।’

ডিআরডিও বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, হাইপারসনিক প্রযুক্তির উন্নয়নের পরবর্তী ধাপটি হবে দূরপাল্লার হাইপারসোনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রগুলো তৈরি করা। আগামী পাঁচ থেকে ছয় বছরে এটি সম্ভব হবে বলে জানান তারা।

গত বছরের জুনে এইচএসটিডিভির প্রথম পরীক্ষায় ব্যর্থ হয়েছিল ভারত।

গতকাল প্রাথমিকভাবে সফল হলেও যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের মতো কয়েক মিনিটের জন্য স্থায়ী স্ক্র্যামজেট চালিত হাইপারসোনিক ফ্লাইট তৈরি করতে এখনও দীর্ঘপথ পাড়ি দিতে হবে ভারতের।

ভারত ইতোমধ্যেই রাশিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে তৈরি করেছে সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইল। রাশিয়ার তৈরি মাঝারি পাল্লার সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইলের উন্নত সংস্করণ ‘ব্রাহ্মস’ নিয়ে সফলভাবে কাজ করেছেন ভারতীয় বিজ্ঞানীরা।

রাশিয়া তৈরি মিসাইলের আক্রমণের পরিসর ২৯০ কিলোমিটার থেকে সেটিকে ৪০০ কিলোমিটারেরও বেশি পরিসরে উন্নীত করেছে ভারত।

ডিআরডিওকে অভিনন্দন জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটে বলেন, ‘আমাদের বিজ্ঞানীদের তৈরি স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন শব্দের গতির চেয়ে ছয় গুণ বেশি দ্রুতগতির। বিশ্বে খুব কম দেশেরই এ ধরনের সক্ষমতা রয়েছে।’

এ ছাড়াও, ভারতের কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এক টুইটে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তোলার আহ্বান সফল করার পথে এই যুগান্তকারী কৃতিত্বের জন্য ডিআরডিওকে আমার অভিনন্দন। ভারত আপনাদের জন্য গর্বিত।’

Comments

The Daily Star  | English

Extreme heat sears the nation

The scorching heat continues to disrupt lives across the country, forcing the authorities to close down all schools and colleges till April 27.

4h ago