শীর্ষ খবর

আফগান-তালেবান ‘ঐতিহাসিক’ শান্তি আলোচনা শুরু

আফগানিস্তান সরকার ও তালেবান প্রতিনিধিদের মধ্যে প্রথমবারের মতো শান্তি আলোচনা শুরু হয়েছে। কাতারের দোহায় আজ শনিবার এই আলোচনা শুরু হয়।
কাতারের দোহায় শুরু হয়েছে আফগান সরকার ও তালেবানের মধ্যে শান্তি আলোচনা। ছবি: রয়টার্স

আফগানিস্তান সরকার ও তালেবান প্রতিনিধিদের মধ্যে প্রথমবারের মতো শান্তি আলোচনা শুরু হয়েছে। কাতারের দোহায় আজ শনিবার এই আলোচনা শুরু হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দোহায় গেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এ আলোচনাকে তিনি ‘ঐতিহাসিক’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

তালেবান ও আফগান সরকারের প্রতিনিধিদের মধ্যে এটিই সরাসরি প্রথম কোনো আলোচনা।

ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তালেবানের নিরাপত্তা চুক্তির পরই এ আলোচনা শুরুর কথা ছিল। তবে, একজন বিতর্কিত বন্দির বিনিময় নিয়ে মতবিরোধের কারণে তা পিছিয়ে যায়।

কয়েক মাস দেরি হলেও গতকাল শুক্রবার শান্তি আলোচনায় যোগ দিতে আফগান সরকারের একটি প্রতিনিধিদল কাবুল ছেড়ে যায়। প্রতিনিধি দলের নেতা আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ বলেন তারা ‘ন্যায্য ও মর্যাদাপূর্ণ শান্তি’ খুঁজছেন। ১৯ বছর আগে এ দিনটিতেই যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছিল।

ছয় জন বন্দির মুক্তি লাভের পর বৃহস্পতিবারই তালেবান আলোচনায় যোগ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে।

তালেবানরা সবসময়ই আলোচনার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করে আফগান সরকারকে ‘যুক্তরাষ্ট্রের পুতুল’ হিসেবে উল্লেখ করে আসছিল।

তবে, দুপক্ষই ১৯৭৯ সালে শুরু হওয়া সহিংসতার অবসান চায়।

এ আলোচনার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান চুক্তির যোগসূত্র আছে বলে ধারণা করা হয়। ওই চুক্তিতে বিদেশি সেনা সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে একটি নির্দিষ্ট সময়সীমার কথা বলা হয়েছে।

এ সমঝোতায় পৌঁছাতে এক বছরেরও বেশি সময় লেগেছিল। একসময় আফগান সরকারের সঙ্গে তালেবানদের আলোচনার বিষয়টি আরও জটিল করে তোলে।

Comments