রিয়াল থেকে পুরনো ঠিকানায় বেল

পাকাপাকিভাবে নয়, এক মৌসুমের জন্য ধারে প্রিমিয়ার লিগের দলটিতে খেলবেন তিনি।
bale
ছবি: টুইটার

সাত বছর পর পুরনো ঠিকানায় ফিরেছেন ওয়েলস তারকা গ্যারেথ বেল। লা লিগার শিরোপাধারী রিয়াল মাদ্রিদ থেকে আবার ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পারে যোগ দিয়েছেন তিনি।

শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে বেলকে দলভুক্ত করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে স্পার্স। তবে পাকাপাকিভাবে নয়, এক মৌসুমের জন্য ধারে প্রিমিয়ার লিগের দলটিতে খেলবেন তিনি। ব্রিটিশ গণমাধ্যম স্কাই স্পোর্টস জানিয়েছে, ৩১ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের বেতন ও ধারের ফি বাবদ টটেনহ্যামকে গুণতে হচ্ছে ২০ মিলিয়ন পাউন্ড।

টটেনহ্যামে ফেরার খবর দিয়ে বেল নিজেও করেছেন টুইট, ‘স্পার্সের সকল ভক্তের উদ্দেশ্যে বলছি, সাত বছর পর আমি ফিরে এসেছি।’

বেলের টটেনহ্যামে যোগ দেওয়ার গুঞ্জন চলছিল বেশ কিছুদিন ধরে। মাঝে অবশ্য ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও তার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত তারকা কোচ হোসে মরিনহোর দলে ভিড়েছেন তিনি। তাকে দেওয়া হয়েছে নয় নম্বর জার্সি।

২০১৭ সালে পাঁচ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফিতে সাউদাম্পটন ছেড়ে স্পার্সে যোগ দিয়েছিলেন বেল। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর। এরপর লন্ডন শহরের ক্লাবটিতে তারকাখ্যাতি অর্জন করেন তিনি।

বেলের নৈপুণ্যে মুগ্ধ হয়ে ২০১৩ সালে রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে তাকে কিনে নেয় স্প্যানিশ পরাশক্তি রিয়াল। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে, তাকে পেতে লস ব্লাঙ্কোসদের গুণতে হয়েছিল ১০০ মিলিয়ন ইউরো।

মাদ্রিদে প্রথম কয়েকটি মৌসুম বেশ ভালো কাটে বেলের। দলটির হয়ে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালেও গোল করেন তিনি। কিন্তু একের পর এক চোট, ফর্মের উত্থান-পতন ও কোচ জিনেদিন জিদানের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েনের কারণে গত মৌসুমের অধিকাংশ সময় বেঞ্চে বসে কাটাতে হয় তাকে।

রিয়ালের জার্সিতে সবমিলিয়ে ২৫১ ম্যাচ খেলে ১০৫ গোল করেন বেল। চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জয়ের পাশাপাশি দুবার লা লিগা, একবার কোপা দেল রে, তিনবার উয়েফা সুপার কাপ ও তিনবার ক্লাব বিশ্বকাপ জেতার স্বাদও নেন তিনি।

বেলের পাশাপাশি রিয়াল থেকে সার্জিও রেগুইলনকেও দলে টেনেছে স্পার্স। ব্রিটিশ গণমাধ্যমের খবর অনুসারে, ২৩ বছর বয়সী স্প্যানিশ ডিফেন্ডারের জন্য তাদেরকে ব্যয় করতে হয়েছে ২৮ মিলিয়ন পাউন্ড। আনুষঙ্গিক খরচ বাবদ আরও চার মিলিয়ন পাউন্ড যোগ হতে পারে।

Comments

The Daily Star  | English

Why was Abu Sayed shot dead in cold blood?

Why was Abu Sayed of Rangpur's Begum Rokeya University shot down by police? He was standing alone, totally unarmed with arms stretched out, holding no weapons but a stick

1h ago