করোনাভাইরাস

ভারতে শনাক্ত সাড়ে ৫৫ লাখ ছাড়াল, মৃত্যু প্রায় ৮৯ হাজার

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৭৫ হাজার ৮৩ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৫৫ লাখ ৬২ হাজার ৬৬৩ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।
ভারতের আহমেদাবাদে অ্যান্টিজেন কিটের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষার জন্য সুরক্ষা পোশাক পরে নমুনা সংগ্রহ করছেন এক স্বাস্থ্যকর্মী। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০। ছবি: রয়টার্স

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৭৫ হাজার ৮৩ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৫৫ লাখ ৬২ হাজার ৬৬৩ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।

একই সময়ে মারা গেছেন আরও এক হাজার ৫৩ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মৃত্যুবরণ করেছেন ৮৮ হাজার ৯৩৫ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক লাখ এক হাজার ৪৬৮ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৪৪ লাখ ৯৭ হাজার ৮৬৭ জন। ভারতে মোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮০ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

আজ মঙ্গলবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। এরপর রয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ, তামিল নাড়ু, কর্ণাটক, উত্তর প্রদেশ ও দিল্লিতে। দেশটিতে মোট শনাক্ত ৫৫ লাখ ৬২ হাজার ৬৬৩ জনের মধ্যে বর্তমানে আক্রান্ত রয়েছেন নয় লাখ ৭৫ হাজার ৮৬১ জন।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নয় লাখ ৩৩ হাজার ১৮৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর এখন পর্যন্ত পরীক্ষা করা হয়েছে ছয় কোটি ৫৩ লাখ ২৫ হাজার ৭৭৯টি নমুনা।

উল্লেখ্য, জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী, সংক্রমণের দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বে ভারতের অবস্থান দুই নম্বরে। ভারতের আগে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও পরে ব্রাজিল।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ১৩ লাখ ২৮ হাজার ২৩৮ জন এবং মারা গেছেন নয় লাখ ৬৪ হাজার ৮৪৪ জন। আর সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি ১৫ লাখ তিন হাজার ৪৯৬ জন।

Comments

The Daily Star  | English

Home minister says it's a planned murder

Three Bangladeshis arrested; police yet to find his body

1h ago