শীর্ষ খবর

জমি নিয়ে বিরোধ, হামলায় বৃদ্ধের মৃত্যুর অভিযোগ

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সাভারের আশুলিয়ায় স্বজনদের হাতে এক বৃদ্ধের মৃ্ত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গতকাল রবিবার রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আফাজ উদ্দিন পালোয়ান (৭০) মারা যান বলে জানিয়েছেন তার ছেলে মোক্তার হোসেন পালোয়ান।
Savar_DS_Map.jpg
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সাভারের আশুলিয়ায় স্বজনদের হাতে এক বৃদ্ধের মৃ্ত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গতকাল রবিবার রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আফাজ উদ্দিন পালোয়ান (৭০) মারা যান বলে জানিয়েছেন তার ছেলে মোক্তার হোসেন পালোয়ান।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আব্দুর রাশিদ জানান, অভিযোগ আছে পারিবারিক কলহের জেরে গত শুক্রবার রাত ৯টার দিকে আফাজ উদ্দিনকে পিটিয়ে আহত করেন তার স্বজনরা। পরে তাকে সাভারের একটি হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে ওই দিনই তাকে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। তিনি গতরাতে সেখানে মারা যান। সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রাথমিক সুরতহালে নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।

নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, আফাজ উদ্দিনের ছেলে মোক্তার পালোয়ানের সাথে গত শুক্রবার রাতে পারিবারিক বিষয় নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয় তার আপন চাচাত ভাই স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান পালোয়ান ও মহসিন পালোয়ানের। এক পর্যায়ে নিজেরা দুটি পক্ষে বিভক্ত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হন তারা। আফাজ উদ্দিন দু’পক্ষকে থামাতে গেলে মজিবর ও মহসিনসহ তাদের পক্ষের লোকজনের মারধরের শিকার হন তিনি।

মোক্তার হোসেন পালোয়ান অভিযোগ করে বলেন, জোর করে আমার জায়গার ওপর দিয়ে রাস্তা তৈরি করতে চাইলে আমি বাধা দেই। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাতে আমাদের মারধর করা হয়। আমার বাবা বিরোধ মেটাতে এগিয়ে এলে বাবাকে মারধর করে গুরুতর আহত করে। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে গত রাতে তিনি মারা যান।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে মজিবর রহমান পালোয়ান ও মহসিন পালোয়ানের সঙ্গে যোগাযাগ করা সম্ভব হয়নি। ঘটনার পর থেকেই তারা পলাতক। তাদের বাড়িতে গিয়েও কাউকে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানায়, মজিবর ও মহসিনের পক্ষ নিয়ে সংঘর্ষে অংশ নেন স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিন-মজিবরের ভাগিনা ও মোক্তার পালোয়ানের জামাতা রিয়াজ উদ্দিন পালোয়ান।

তবে তিনি দাবি করেন দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় তিনি ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তাকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে জড়ানো হচ্ছে।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (অপরেশন) আব্দুর রাশিদ  বিকেলে দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, এখনও মামলা হয়নি। মামলার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্তদের বিষয়ে আগেই কিছুই বলা যাচ্ছে না। মামলার পর প্রাথমিক অভিযুক্তদের নাম বলা যাবে।

Comments

The Daily Star  | English

Cyclone Remal likely to hit Bangladesh coast by Sunday evening

Maritime ports asked to maintain local cautionary signal no one

2h ago