প্রয়োজনে মামলা করা হবে: সিইসি, বক্তব্য ‘সুপার এডিট’ হয়েছে দাবি নিক্সনের

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন এবং নির্বাচন আইন অনুযায়ী এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
cec_nixon-1.jpg
সিইসি কে এম নূরুল হুদা ও সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন এবং নির্বাচন আইন অনুযায়ী এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সিইসি বলেন, ‘ওই সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে আমরা (মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ব্যবস্থা নিতে) একটি অভিযোগ পেয়েছি। আমরা এ বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করছি।’

প্রয়োজনে মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে আমি বৈঠক করেছি। আমরা কী করব, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দু-এক দিনের মধ্যেই তা জানানো হবে।’

এর আগে, মুজিবুর রহমান চৌধুরীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) একটি চিঠি পাঠানো হয়।

সিইসি জানান, উপজেলা নির্বাচনের সময় তিনি যা করেছেন, তা কাম্য নয়।

‘তিনি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন এবং আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি একজন সংসদ সদস্য হওয়া সত্ত্বেও, এর ব্যত্যয় হবে না’, যোগ করেন তিনি।

এদিকে, ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) ফোনে গালিগালাজের যে অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়েছে, সেটি বানোয়াট বলে দাবি করেছেন মুজিবর রহমান চৌধুরী।

তার দাবি, বক্তব্যকে ‘সুপার এডিট’ করা হয়েছে। এমন গালিগালাজ তিনি করেননি।

আজ জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে মুজিবর রহমান এসব দাবি করেন। গত শনিবার অনুষ্ঠিত চরভদ্রাসন উপজেলার উপনির্বাচনে ‘ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের পক্ষপাতমূলক আচরণ ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে’ এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

মুজিবর রহমান বলেন, ‘নির্বাচনের দিন কেন্দ্রের মাঠে দাঁড়িয়ে সিগারেট খাওয়ায় আমাদের এক কর্মীকে গাড়িতে তোলেন ম্যাজিস্ট্রেট। আমি ইউএনওকে ফোন দিয়ে বিষয়টি জানাই। এর বাইরে যে বক্তব্য ছড়ানো হয়েছে, সেগুলো এডিট করা। এগুলোর কোনো ভিত্তি নেই।’

Comments