দেড় দশক পর বলিভিয়ায় জিতল আর্জেন্টিনা

প্রথমার্ধের মাঝামাঝি সময়ে যখন গোল হজম করে আর্জেন্টিনা, তখন মনে হয়েছিল, বলিভিয়ার মাঠে আরেকটি তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে যাচ্ছে তারা।
argentina
ছবি: আর্জেন্টিনা ফুটবল টুইটার

প্রথমার্ধের মাঝামাঝি সময়ে যখন গোল হজম করে আর্জেন্টিনা, তখন মনে হয়েছিল, বলিভিয়ার মাঠে আরেকটি তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে যাচ্ছে তারা। কারণ, দলটির খেলোয়াড়দের মধ্যে বোঝাপড়ার অভাব ছিল স্পষ্ট, ছিল না কোনো ছন্দও। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে গতি আসে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যদের খেলায়। প্রয়োজনের মুহূর্তে জ্বলে ওঠেন ফরোয়ার্ডরা। তাতে পিছিয়ে পড়েও প্রতিপক্ষের মাঠে দুর্লভ জয় তুলে নেয় আলবিসেলেস্তেরা।

মঙ্গলবার রাতে কাতার বিশ্বকাপের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে বলিভিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে তিন হাজার ৬০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত লা পাজের হার্নান্দো সাইলেস স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের এগিয়ে নিয়েছিলেন মার্সেলো মোরেনো। বিরতির ঠিক আগে লাউতারো মার্তিনেজ সফরকারীদের সমতায় ফেরানোর পর দ্বিতীয়ার্ধের শেষদিকে ব্যবধান গড়ে দেন বদলি নামা হোয়াকিন কোরেয়া।

lautaro martinez
ছবি: টুইটার

বলিভিয়ার মাঠে আর্জেন্টিনার সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ছিল খুবই হতাশাজনক। তাই হার এড়াতে পারলেই তারা যেন হতো খুশি! ম্যাচের আগে ইঙ্গিত ছিল তেমনই। তবে এবার লা পাজের উচ্চতার ভয়কে জয় করে দেখিয়েছে দলটি। ২০০৫ সালের পর প্রথমবারের মতো বলিভিয়ায় শেষ হাসি হেসে মাঠ ছেড়েছে তারা।

বল দখলে স্বাগতিকরা এগিয়ে থাকলেও গোলপোস্টে শট নেওয়া ও সুযোগ তৈরিতে আধিপত্য ছিল লিওনেল মেসিদের। তারা মোট ১৬টি শট নেয়, যার তিনটি ছিল লক্ষ্যে। বিপরীতে, বলিভিয়া নেয় দশটি শট। তাদেরও লক্ষ্যে ছিল তিনটি।

correa
ছবি: টুইটার

সপ্তম মিনিটে লিড নিতে পারত বলিভিয়া। সাউল তোরেসের দারুণ ক্রসের পর হেড লক্ষ্যে রাখতে ব্যর্থ হন মোরেনো। তবে ২৪তম মিনিটে আগের ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করে দলকে এগিয়ে নেন তিনি। আলেহান্দ্রো চুমাসেরোর ক্রসে চমৎকার হেডে আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক ফ্রাঙ্কো আরমানিকে পরাস্ত করেন এই ফরোয়ার্ড।

পিছিয়ে পড়ে যেন হুঁশ ফেরে অতিথিদের! ৪২তম মিনিটে লেয়ান্দ্রো পারদেসের শট পোস্টে লেগে ফিরে আসলে সমতায় ফেরা হয়নি তাদের। কিন্তু এই হতাশায় দলটিকে পুড়তে হয়নি বেশিক্ষণ। ৪৫তম মিনিটে ভাগ্যক্রমে স্কোরলাইন ১-১ করে তারা। বলিভিয়া ডিফেন্ডার হোসে কারাসকো বল বিপদমুক্ত করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তা মার্তিনেজের পায়ে লেগে জালে জড়ায়।

Argentina
ছবি: টুইটার

৭৬তম মিনিটে মেসির দারুণ পাসে গোলরক্ষক কার্লোস লাম্পেকে একা পেয়ে গিয়েছিলেন মার্তিনেজ। কিন্তু ইন্টার মিলানের এই ফরোয়ার্ডের শট অসামান্য দক্ষতায় রুখে দেন তিনি। তিন মিনিট পর অবশ্য জয়সূচক গোল পেয়ে যায় আর্জেন্টিনা। মার্তিনেজের পাসে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন লাৎসিও ফরোয়ার্ড কোরেয়া।

বাছাইপর্বে এটি আর্জেন্টিনার টানা দ্বিতীয় জয়। আগের ম্যাচে ঘরের মাঠে ইকুয়েডরকে হারিয়ে আগামী ২০২২ বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার অভিযান শুরু করেছে তারা।

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

A section of government officials are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Center has found.

2h ago