ঢাকা-নোয়াখালী ধর্ষণবিরোধী লংমার্চ: কুমিল্লার পথে পথে সভা

ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে নয় দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ঢাকা-নোয়াখালী লংমার্চে কুমিল্লার পথে পথে পথসভা করেছে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন।
কুমিল্লার পথে পথে পথসভা করেছে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন। ছবি: স্টার

ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে নয় দফা দাবি আদায়ের লক্ষে ঢাকা-নোয়াখালী লংমার্চে কুমিল্লার পথে পথে পথসভা করেছে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন।

বাংলাদেশ বামগণতান্ত্রিক ছাত্র জোটগুলো ঢাকা থেকে নোয়াখালী লংমার্চ নিয়ে আজ শুক্রবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় কুমিল্লা পৌঁছায়। এরপর কুমিল্লা টাউন হল প্রাঙ্গনে  উন্মুক্ত মঞ্চে এক সমাবেশ করে।

বিকেল পাঁচটার দিকে কুমিল্লায় পৌঁছায় লংমার্চটি। ছবি: স্টার

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সভাপতি মেহেদী হাসান রুবেল, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি মাসুদ রানা, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্রের সভাপতি সীমা দত্ত, সিপিবি নারী সেলের সদস্য লুনা নূর, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি গোলাম মোস্তফা। 

কুমিল্লার টাউন হলে অনুষ্ঠিত এই পথ সমাবেশে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কুমিল্লা জেলা সভাপতি তানভীর আলম সভাপতিত্ব করেন।

পরে লংমার্চটি কুমিল্লা থেকে ফেনীর উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

এর আগে বিকাল সাড়ে ৩টায় প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের ঢাকা-নোয়াখালী লংমার্চের অংশ হিসেবে চান্দিনা বাস স্টেশনে আরেকটি পথসভা করে। সেখানেও বিভিন্ন বাম সংগঠনের নেত্রীবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের দাবিসমূহের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি কুমিল্লা জেলা কমিটির সভাপতি এবিএম আতিকুর রহমান বাশার, বাংলাদেশ কৃষক সমিতি কুমিল্লা জেলা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড সুজাত আলী, সিপিবি চান্দিনা উপজেলার সাধারণ সম্পাদক কমরেড সুধাংশু কুমার নন্দী, নিজেরা করি সংস্থা চট্টগ্রাম বিভাগীয় সংগঠক সবিতা রাণী তালুকদার, ভূমিহীন সংগঠনের নারী নেত্রী সুফিয়া বেগম।

আরও পড়ুন:

ঢাকা-নোয়াখালী ধর্ষণবিরোধী লংমার্চ: নারায়ণগঞ্জে সমাবেশ ও মিছিল

ঢাকা থেকে নোয়াখালীর পথে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চ

Comments