করোনাভাইরাস

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৫০১২৯, মৃত্যু ৫৭৮

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৫০ হাজার ১২৯ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে ভারতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৭৮ লাখ ৬৪ হাজার ৮১১ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।
মুম্বাইয়ে একটি গ্রাফিতি। ছবি: রয়টার্স

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৫০ হাজার ১২৯ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে ভারতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৭৮ লাখ ৬৪ হাজার ৮১১ জনে দাঁড়াল। সংক্রমণের দিক থেকে বিশ্বের মধ্যে ভারতের অবস্থান বর্তমানে দ্বিতীয়তে।

একই সময়ে মারা গেছেন আরও ৫৭৮ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মৃত্যুবরণ করেছেন এক লাখ ১৮ হাজার ৫৩৪ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬২ হাজার ৭৭ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৭০ লাখ ৭৮ হাজার ১২৩ জন। ভারতে মোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ শতাংশ।

আজ রোববার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। এরপর রয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ, কর্ণাটক, তামিল নাড়ু, উত্তর প্রদেশ ও দিল্লিতে। দেশটিতে মোট শনাক্ত ৭৮ লাখ ৬৪ হাজার ৮১১ জনের মধ্যে বর্তমানে আক্রান্ত রয়েছেন ছয় লাখ ৬৮ হাজার ১৫৪ জন।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ১১ লাখ ৪০ হাজার ৯০৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর এখন পর্যন্ত পরীক্ষা করা হয়েছে ১০ কোটি ২৫ লাখ ২৩ হাজার ৪৬৯টি নমুনা।

উল্লেখ্য, গত ৩০ জানুয়ারি ভারতে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী, সংক্রমণের দিক থেকে বর্তমানে বিশ্বে ভারতের অবস্থান দুই নম্বরে। ভারতের আগে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও পরে ব্রাজিল।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটি ২৫ লাখ ৬২ হাজার ৮৩০ জন এবং মারা গেছেন ১১ লাখ ৪৯ হাজার ২০২ জন। আর সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি ৮৭ লাখ ৯৯০ জন।

Comments

The Daily Star  | English

Stern action if protestors try to break law and order: DMP commissioner

Dhaka Metropolitan Commissioner Habibur Rahman once again warned that they would take stern action if quota reform protesters do not follow the court order

Now