খেলা

গেইলের মন বলছে, তিনি সেঞ্চুরিই করেছেন

৯৯ রানে আউট হওয়ার পর ‘ইউনিভার্স বস’ হাসতে হাসতে বলেছেন, তার কাছে এই ইনিংস সেঞ্চুরির সমানই।
gayle
ছবি: টুইটার

ক্রিস গেইল যতটা বিধ্বংসী, ততটাই আমুদে। মাঠে ও মাঠের বাইরে বহুবার তা দেখা গেছে। আরও একবার ক্যারিবিয়ান তারকার মোহনীয় ব্যক্তিত্বের নিদর্শন মিলেছে। রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে দুর্ভাগ্যজনকভাবে ৯৯ রানে আউট হওয়ার পর ‘ইউনিভার্স বস’ হাসতে হাসতে বলেছেন, তার কাছে এই ইনিংস সেঞ্চুরির সমানই।

শুক্রবার রাতে মাত্র ১ রানের আক্ষেপে পুড়তে হয় গেইলকে। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের এই বাঁহাতি ক্রিকেটার সাজঘরে ফেরেন সেঞ্চুরির খুব কাছ থেকে। রাজস্থানের জোফরা আর্চার ছক্কা হজম করার পরের বলেই দারুণ এক ইয়র্কারে উপড়ে ফেলেন স্টাম্প। ফলে দ্বিতীয়বারের মতো ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএলে) ৯৯ রানে মাঠ ছাড়ার তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে গেইলের।

আবুধাবিতে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নামা পাঞ্জাবের ইনিংস শেষে তিনি জানান, ক্রিকেট ভীষণভাবে উপভোগ করছেন, ‘৯৯ রানে আউট হওয়াটা দুর্ভাগ্যজনক। কিন্তু এর আগেও এমন পরিস্থিতিতে পড়েছি এবং (৯৯ রানে) আউট হয়েছি। ভালো একটা বল ছিল। এরকম ঘটে থাকে। এখনও (উইকেটে থাকাটা) উপভোগ করছি। মজা লাগছে।’

এরপর ভক্তদের উদ্দেশ্যে হাস্যোজ্জ্বল গেইল বলেন, ‘যারা সেঞ্চুরি প্রত্যাশা করেছিলেন, তাদেরকে বলছি, আমি দুঃখিত। আজকে (শুক্রবার) পারিনি। আমার অন্তরে এটা সেঞ্চুরিই। আমি সেঞ্চুরি করেছি। ঠিক আছে?’

তিনে নেমে ৬৩ বলের ইনিংসে ছয়টি চার ও আটটি ছয় মারেন গেইল। তুলে নেন চলতি আইপিএলে নিজের ষষ্ঠ ম্যাচে তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি। পাশাপাশি অনন্য এক কীর্তিও গড়েন ‘টি-টোয়েন্টির ফেরিওয়ালা’। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে এক হাজার ছক্কা স্পর্শ করেছেন তিনি। ৪১০ ম্যাচে তার ছয় এখন ১০০১টি।

রেকর্ডের আলাপে কঠোর পরিশ্রম ও একগ্রতার কথা উল্লেখ করে গেইল জানান, ‘ওহ, ১০০০ ম্যাক্সিমাম (ছক্কা)? আরেকটি রেকর্ড। তার মানে এই ৪১ বছর বয়সে এসেও ভালোভাবে বল হাঁকাতে পারছি। সেজন্য (নিজেকে) ধন্যবাদ জানাতেই হয়।’

তিনি যোগ করেন, ‘দারুণ একটা ইনিংস ছিল। আমার মনে হয়, ১৮০ ভালো একটি সংগ্রহ। উইকেট খুব ভালো। এটা রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আরও ভালো হতে থাকবে।’

গেইলের একদম শেষ কথাগুলো ফলে যাওয়ায় তার দলের আর জয় পাওয়া হয়নি! ব্যাটিংবান্ধব উইকেটে প্রতিপক্ষ রাজস্থানের সব ব্যাটসম্যানই হাত খুলে খেলেন। তাতে ১৫ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই ১৮৬ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য পেরিয়ে যায় তারা। 

ম্যাচসেরা বেন স্টোকস খেলেন ২৬ বলে ৫০ রানের আগ্রাসী ইনিংস। আরেক ওপেনার রবিন উথাপ্পার ব্যাট থেকে আসে ২৩ বলে ৩০ রান। সঞ্জু স্যামসনও ছিলেন তেতে। তিনি করেন ২৫ বলে ৪৮ রান। রাজস্থানের অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ২০ বলে ৩১ ও জস বাটলার ১১ বলে ২২ রানে অপরাজিত থাকেন।

Comments

The Daily Star  | English
Bank mergers in Bangladesh

Bank mergers: All dimensions must be considered

In general, five issues need to be borne in mind when it comes to bank mergers in Bangladesh.

9h ago