শীর্ষ খবর

জামাইকে শিকলবন্দি করে রাখার দায়ে শাশুড়ি ও শ্যালক কারাগারে

বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের পশ্চিম বুড়িরচর গ্রামে শ্বশুরবাড়ি থেকে শিকলবন্দি জামাইকে উদ্ধার করা হয়েছে।
Borguna.jpg
শ্বশুরবাড়িতে জামাইকে শিকলবন্দি করে রাখা হয়। ছবি: স্টার

বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের পশ্চিম বুড়িরচর গ্রামে শ্বশুরবাড়ি থেকে শিকলবন্দি জামাইকে উদ্ধার করা হয়েছে।

গতকাল রাত সাড়ে ১০টার দিকে আবুল খায়ের (২৬) নামের ওই জামাইকে উদ্ধার করে পুলিশ।

আবুল খায়েরকে শিকলবন্দি করে রাখার দায়ে শাশুড়ি খাদিজা বেগম ও শ্যালক রহমান সরদারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আবুল খায়ের বাদী হয়ে এ ব্যাপারে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গ্রেপ্তাকৃতদের আজ মঙ্গলবার দুপুরে বরগুনা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে উভয়কে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিকুল ইসলাম বিষয়টি দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন।

আবুল খায়ের পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার ছোট আমতলা গ্রামের আব্দুল ওহাব শেখের ছেলে।

পুলিশ জানায়, দুই বছর আগে আবুল খায়েরের সঙ্গে বুড়িরচর গ্রামের পনু সরদারের মেয়ের বিয়ে হয়। তাদের আট মাসের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। কিন্তু ওই বিয়েতে কাবিন করা হয়নি। এ নিয়ে খায়েরের সঙ্গে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরোধ চলছিল।

শাশুড়ি খাদিজা বেগম বলেন, ‘রোববার সন্ধ্যায় আবুল খায়ের আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে। বিয়েতে কাবিন দিতে রাজি না থাকায় কিছুক্ষণ পরেই আমার ছেলে রহমান সরদার তার পায়ে শিকল বেঁধে তালাবন্ধ করে রাখে।’

রহমান সরদার বলেন, ‘আমার বোনকে বিয়ের পর কাবিন না করায় ভগ্নীপতিকে বেঁধে রাখা হয়। কাবিন করলেই তাকে ছেড়ে দেওয়া হতো।’

ওসি তারিকুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে শিকলবন্দি জামাইকে উদ্ধার এবং দুই জনকে আটক করা হয়েছে। আবুল খায়ের এ ব্যাপারে তার শাশুড়ি খাদিজা বেগম ও শ্যালক রহমান সরদারের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় উভয়কে আদালতে পাঠানো হয়।

Comments

The Daily Star  | English

Lull in Gaza fighting despite blasts in south

Israel struck Gaza on Monday and witnesses reported blasts in the besieged territory's south, but fighting had largely subsided on the second day of an army-declared "pause" to facilitate aid flows

4h ago