ঘরের মাঠে আর্জেন্টিনার হোঁচট

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইয়ে নিজেদের আগের দুটি ম্যাচে জিতেছিল লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা।
messi
ছবি: টুইটার

বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে হোঁচট খেয়েছে আর্জেন্টিনা। নিজেদের মাটিতে প্যারাগুয়ের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছেড়েছে আলবিসেলেস্তেরা।

শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকালে লা বোম্বোনেরায় দুই দলের ম্যাচটি শেষ হয় ১-১ সমতায়। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইয়ে নিজেদের আগের দুটি ম্যাচে জিতেছিল লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা।

দুটি গোলই হয়েছে ম্যাচের প্রথমার্ধে। আনহেল রোমেরো প্যারাগুয়েকে এগিয়ে নেওয়ার পর আর্জেন্টিনাকে সমতায় ফেরান নিকোলাস গঞ্জালেজ।

ম্যাচে বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণে আধিপত্য ছিল স্বাগতিকদের। তারা সুযোগ তৈরি করে নয়টি। দলটির নেওয়া ১৫টি শটের পাঁচটি ছিল লক্ষ্যে।

lautaro and nicolas
ছবি: টুইটার

শুরুটা আক্রমণাত্মক ঢঙে করেছিল প্যারাগুয়েই। শুরুর দিকে অধিকাংশ সময় বল পায়ে রাখছিল তারা। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ছন্দ খুঁজে পায় আর্জেন্টিনা। বিশেষ করে, দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকবার প্রতিপক্ষের রক্ষণের পরীক্ষা নেয় তারা। কিন্তু আসেনি জয়সূচক গোল।

২১তম মিনিটে স্পট-কিক থেকে প্যারাগুয়েকে উল্লাসে মাতান রোমেরো। ডি-বক্সে মিগুয়েল আলমিরনকে আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার লুকাস মার্তিনেজ ফাউল করায় পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি।

পিছিয়ে পড়ে আক্রমণে ধার বাড়ানো আর্জেন্টিনা সমতায় ফেরে ৪১তম মিনিটে। বদলি মিডফিল্ডার জিওভান্নি লো সেলসোর কর্নারে দারুণ হেডে লক্ষ্যভেদ করেন উইঙ্গার গঞ্জালেজ।

৪৯তম মিনিটে লাউতারো মার্তিনেজের বাঁ পায়ের শট লক্ষ্যে থাকেনি। আট মিনিট পর লো সেলসোর পাসে নিচু শটে বল জালে পাঠিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। কিন্তু আক্রমণের শুরুতে গঞ্জালেজ প্যারাগুয়ের এক খেলোয়াড়কে ফাউল করায় ভিএআরের সাহায্যে গোল বাতিল করেন রেফারি।

argentina football
ছবি: টুইটার

৬৯তম মিনিটে মেসির কাছ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে শট নেন ইন্টার মিলান ফরোয়ার্ড মার্তিনেজ। কিন্তু তার প্রচেষ্টা অতিথি গোলরক্ষক অ্যান্থনি সিলভাকে কোনো পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি।

চার মিনিট পর গোল প্রায় পেয়েই গিয়েছিলেন মেসি। তার ফ্রি-কিক সিলভার হাত ছুঁয়ে ক্রসবারে লেগে মাঠের বাইরে চলে যায়। এরপর আর গোলের নিশ্চিত কোন সুযোগ পায়নি আর্জেন্টিনা।

জয় না পেলেও বাছাইয়ের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গেছে আলবিসেলেস্তেরা। দুইবারের সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের অর্জন তিন ম্যাচে ৭ পয়েন্ট।

৬ পয়েন্ট করে নিয়ে গোল পার্থক্যে ব্রাজিল দুইয়ে ও ইকুয়েডর তিনে রয়েছে। রেকর্ড পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন সেলেসাওরা অবশ্য এক ম্যাচ কম খেলেছে।

Comments

The Daily Star  | English

Govt may go for quota reforms

The government is considering a logical reform in the existing quota system in public service, but it will not take any initiative to that effect or give any assurances until the matter is resolved by the Supreme Court, where the issue is now pending.

1d ago