সরকারি চিকিৎসকদের বেসরকারি হাসপাতালে সম্পৃক্ত হওয়ায় কড়াকড়ি

অফিস চলাকালে সরকারি হাসপাতালের কোনো চিকিৎসক বেসরকারি কোনো স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে সেবা দিতে পারবেন না। গতকাল মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের টাস্কফোর্স কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
ছবি: আনিসুর রহমান

অফিস চলাকালে সরকারি হাসপাতালের কোনো চিকিৎসক বেসরকারি কোনো স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে সেবা দিতে পারবেন না। গতকাল মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের টাস্কফোর্স কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অফিস চলাকালে সরকারি হাসপাতালের কোনো চিকিৎসক বেসরকারি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পারবেন না। তবে, কোনো কারণে কর্মরত অবস্থায় থাকলে টাস্কফোর্স ও সংশ্লিষ্টদের জানাতে হবে।

এ ছাড়া, হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ল্যাব ও ক্লিনিকগুলোতে লাইসেন্স ও নিবন্ধন নম্বর স্পষ্টভাবে উল্লেখ থাকতে হবে।

সভায় টাস্কফোর্স সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক পরিদর্শন ও অবৈধ কার্যক্রমের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করবে বলেও সিদ্ধান্ত হয়।

এ ছাড়া, অনিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষেত্রে যারা ১৬ নভেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে পারেনি, তাদের লাইসেন্স আবেদন গ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত হয়।

স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের জনস্বাস্থ্য-১ অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব এবং টাস্কফোর্স কমিটির আহ্বায়ক মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে এ সভায় টাস্কফোর্স কমিটির সদস্য সচিব শিব্বির ওসমানী, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসপাতাল শাখার পরিচালক ফরিদ হোসেন মিঞা, যুগ্ম-সচিব সালমা তানজিয়া, যুগ্ম-সচিব সায়লা ফারজানাসহ অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

They don't feel ashamed to call themselves Razakars: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today termed the slogan, "Who are you? Who am I? Razakar. Razakar" chanted by the anti-quota protesters as "very regrettable"

11m ago