পিছিয়ে পড়া জুভেন্টাসকে নকআউটে তুললেন রোনালদো-মোরাতা

দুই ম্যাচ হাতে রেখে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে জায়গা করে নিয়েছে জুভেন্টাস।
juventus
ছবি: টুইটার

দুই ম্যাচ হাতে রেখে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে জায়গা করে নিয়েছে জুভেন্টাস। শুরুতে গোল হজম করা ইতালিয়ান পরাশক্তিদের সমতায় ফেরান ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। এরপর অসংখ্য সুযোগ নষ্ট হওয়ায় শেষ ষোলোতে ওঠার অপেক্ষা বাড়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। তবে যোগ করা সময়ে ব্যবধান গড়ে দেন বদলি আলভারো মোরাতা।

মঙ্গলবার রাতে ইউরোপের সেরা ক্লাব আসরের ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে জয় পেয়েছে আন্দ্রেয়া পিরলোর শিষ্যরা। ঘরের মাঠ আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে ফেরেন্সভারোসকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা। দুদলের আগের দেখায় হাঙ্গেরির ক্লাবটির মাঠে ৪-১ গোলে জিতেছিল দলটি।

ম্যাচের ১৪তম মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগটি পায় স্বাগতিকরা। ডি-বক্সের বাম দিক থেকে রোনালদোর ক্রসে একাদশে ফেরা পাওলো দিবালার ভলি পা দিয়ে রক্ষা করেন গোলরক্ষক দেনেস দিবুস। এই আক্রমণ সামাল দেওয়ার পাঁচ মিনিটের মধ্যে এগিয়ে যায় ফেরেন্সভারোস। ডান প্রান্ত থেকে তোকমাক এনগুয়েনের ক্রস জুভেন্টাসের এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে পৌঁছে যায় মির্তো উজিনির কাছে। ডান পায়ের ভলিতে গোলরক্ষক ভোইচেখ স্ট্যান্সনিকে ফাঁকি দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি।

২৯তম মিনিটে হুয়ান কুয়াদ্রাদোর কর্নারে দানিলোর হেড সহজেই লুফে নেন দিবুস। তবে ছয় মিনিট পর জাল আর অক্ষত রাখতে পারেননি তিনি। রোনালদোর নৈপুণ্যে গোল শোধ করে দেয় জুভরা। কুয়াদ্রাদোর পাসে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের জোরালো শটে জাল খুঁজে নেন এই পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

ronaldo
ছবি: টুইটার

সমতায় ফেরার পর তেড়েফুঁড়ে খেলতে থাকে ইতালিয়ান সিরি আর শিরোপাধারীরা। কিন্তু গোলের দেখা মিলছিল না। ভাগ্যও সহায়তা করছিল না তাদেরকে। ৬০তম মিনিটে ফেদেরিকো বের্নারদেস্কির বুলেট‌ গতির শট গোলরক্ষকের আঙুল ছুঁয়ে বাধা পায় পোস্টে। দুই মিনিট পর মোরাতার পেনাল্টির আবেদনে সাড়া দেননি রেফারি। ৬৮তম মিনিটে হতাশায় মুখ ঢাকেন রোনালদো। মোরাতার রক্ষণচেরা পাস নিয়ন্ত্রণে নিতে তালগোল পাকিয়ে ফেলেন তিনি। ৭৬তম মিনিটে ফের আক্ষেপে পুড়তে হয় জুভেন্টাসকে। মোরাতার বাঁ পায়ের শট গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও পোস্টে লেগে চলে যায় মাঠের বাইরে।

অবশেষে যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায় স্বাগতিকরা। কুয়াদ্রাদোর ক্রসে হেড করে নিশানা ভেদ করেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার মোরাতা। বল গোলরক্ষক বরাবরই ছিল। কিন্তু দুর্ঘটনাক্রমে দিবুসের হাতে লেগে দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে তা জালে জড়ায়। ফলে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে তুরিনের বুড়িরা।

চার ম্যাচে তিন জয়ে জুভেন্টাসের পয়েন্ট ৯। গ্রুপের অন্য ম্যাচে দিনামো কিয়েভের মাঠে ৪-০ গোলে জিতে নকআউটে নাম লিখিয়েছে বার্সেলোনাও। পূর্ণ ১২ পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে। তিনে থাকা দিনামো ও তলানির দল ফেরেন্সভারোসের পয়েন্ট সমান ১ করে।

Comments

The Daily Star  | English