স্মিথ-ম্যাক্সওয়েলের তাণ্ডবে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার

আরও একবার ভারতের বিপক্ষে দুর্বার স্টিভেন স্মিথের ব্যাট। আবার তিনি করলেন ঝড়ো সেঞ্চুরি। শেষ দিকে নেমে বিস্ফোরক ইনিংস খেললেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল

আরও একবার ভারতের বিপক্ষে দুর্বার স্টিভেন স্মিথের ব্যাট। আবার তিনি করলেন ঝড়ো সেঞ্চুরি। শেষ দিকে নেমে বিস্ফোরক ইনিংস খেললেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। রানের পাহাড়ে চড়ে ভারতের বিপক্ষে নতুন রেকর্ড করল অস্ট্রেলিয়া। পর্বত পেরুতে বিরাট কোহলি, লোকেশ রাহুল চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি।

সিডনিতে দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও দাপুটে জয় পেয়েছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। আগের ম্যাচের ৩৭৩ রানকে ছাপিয়ে  ৩৮৯ রান করে ভারতের বিপক্ষে নয়া রেকর্ড গড়ে তারা। পরে সফরকারীদের ৩৩৮ রানে আটকে ৫১ রানের জয়ে সিরিজ নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া।

Steve Smith

দলের জয়ে রান পেয়েছেন বেশ কয়েকজন ব্যাটসম্যান। ডেভিড ওয়ার্নার করেছেন ৭৭ বলে ৮৩, অধিনায়ক ফিঞ্চ করেছেন ৬৯ বলে ৬০। এই ভিতের উপর দাঁড়িয়ে মাত্র ৬৪ বলে ১০৪ রান করেছেন স্মিথ। দলের রান চারশোর কিনারে নিতে মাত্র ২৯ বলে ৬৩ রানের তাণ্ডব ছুটিয়েছেন ম্যাক্সওয়েল।

জবাবে এদিনও ভারতের টপ অর্ডার মেটাতে পারেনি দলের চাহিদা। অধিনায়ক কোহলি ৮৭ বলে করেন ৮৯। লোকেশ রাহুলের ব্যাট থেকে আসে ৬৬ বলে ৭৬ রান।

টস জেতায় এদিনও ব্যাটিং স্বর্গ আগে কাজে লাগানোর সুযোগ মেলে স্বাগতিকদের। দুই ওপেনার আবার আনেন দারুণ শুরু। অনায়াসে ব্যাট করে ফের শতরানের জুটি ছাড়িয়ে যান তারা। ২৩তম ওভারে এই জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ শামি। ততক্ষণে হয়ে গেছে ১৪২ রান।

খানিক পর ৮৩ রান করা ওয়ার্নারকে রান আউট করতে পারলেও লাগাম টানতে পারেনি ভারত। মারনাস লাবুশেনকে এক পাশে রেখে দুরন্ত হয়ে উঠেন স্মিথ। অস্ট্রেলিয়ার সেরা ব্যাটসম্যান মেলে ধরেন স্ট্রোকের পসরা। তরতরিয়ে রান বাড়তে থাকে দলের। তৃতীয় উইকেটে আনেন ১৩৬ রানের জুটি। ৬২ বলে স্মিথ করে ফেলেন সেঞ্চুরি। ১৪ চার, ২ ছক্কার ইনিংস আর এগোয়নি।

তবে লাবুশেনকে নিয়েই বাকিটা সেরেছেন ম্যাক্সওয়েল। আইপিএলে নিষ্প্রভ থাকা এই ব্যাটসম্যান ২৯ বলে ৪টি করে চার-ছক্কায় করেন ৬৩ রান। এর আগে ৬১ বলে ৭০ করে আউট হন লাবুশেন।

পাহাড় টপকাতে গিয়ে মায়ঙ্ক আগারওয়াল-শেখর ধাওয়ান বুঝেশুনে খেলছিলেন। কিন্তু ঝড়ো শুরু আনতে না পারার সঙ্গে থিতু হয়ে তাদের ফেরা চাপ বাড়ায় দলের। শ্রেয়াস আইয়ারকে নিয়ে সেই চাপ সরিয়ে দলকে খেলায় এনেছিলেন কোহলি। কিন্তু ৯৩ রানের জুটির পর আইয়ার ফিরেছেন কাজ অসমাপ্ত রেখে। পরে রাহুলকে নিয়েও দলের আশা বাড়াচ্ছিলেন ভারত অধিনায়ক।

তবে আস্কিং রান রেটের চাপ বাধা হয়ে যায় তাদের। চাপ সরাতে বাড়তি শটের চেষ্টায় কোহলি পুল করে দারুণ এক ক্যাচে বিদায় নেন। তখনই মূলত ম্যাচের ভাগ্য অসিদের দিকেই বেশিরভাগটা হেলে যায়। রাহুল-হার্দিক পান্ডিয়া মিলে অবিশ্বাস্য কিছু করতে পারলেও বদলাতো ছবি।

আডাম জাম্পার বলে ৭৬ রানে বিদায় নেন রাহুল।ও। আগের ম্যাচে তাল পেলেও এদিন ব্যাট-বলের সংযোগ বারবার গড়বড় হওয়ায় হার্দিক খেলেন বেশ কয়েকটি ডট বল। রবীন্দ্র জাদেজা নেমে তাই রোমাঞ্চকর কিছু শট খেলে গ্যালারিতে থাকা ভারতীয় সমর্থকদের সামান্য আনন্দ দিতে পেরেছেন।

২ ডিসেম্বর ক্যানেবেরায় হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে নামবে ভারত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ৫০ ওভারে ৩৮৯/৪ (ওয়ার্নার ৮৩, ফিঞ্চ ৬০, স্মিথ ১০৪, লাবুশেন ৭০, ম্যাক্সওয়েল ৬৩*; হেনরিকস ২*; শামি ১/৭৩, বুমরাহ ১/৭৯, সাইনি ০/৭০, চেহেল ০/৭১, জাদেজা ০/৬০, আগারওয়াল ০/১০, পান্ডিয়া ১/২৪)

ভারত: ৫০ ওভারে ৩৩৮/৯  (আগারওয়াল ২৮,  ধাওয়ান ৩০, কোহলি ৮৯ , আইয়ার ৩৮, রাহুল ৭৬, পান্ডিয়া ২৮, জাদেজা ২৪, সাইনি ১০*, শামী ১, বোমরাহ ০, চেহেল ৪* ; স্টার্ক ০/৮২, হেজেলউড ২/৫৯, কামিন্স ৩/৬৭, জাম্পা ২/৬২, হেনরিকস ১/৩৪, ম্যাক্সওয়েল ১/৩৪)

ফল: অস্ট্রেলিয়া ৫১ রানে জয়ী।

সিরিজ: তিন ম্যাচ সিরিজ অস্ট্রেলিয়া ২-০ তে এগিয়ে।

Comments

The Daily Star  | English

BCL attacks sit-in demo at JU

Quota reform protesters at Jahangirnagar University held a sit-in demo in front of the VC's residence last night, protesting the BCL attack on them

16m ago