নোয়াখালীতে জমি নিয়ে বিরোধে ছুরিকাঘাতে হত্যা, আটক ১

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কাশেম মাঝি (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার এক নম্বর চরজব্বার ইউনিয়নের চর পানাউল্যা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ইতোমধ্যে সফি মিজি (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কাশেম মাঝি (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার এক নম্বর চরজব্বার ইউনিয়নের চর পানাউল্যা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ইতোমধ্যে সফি মিজি (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিহত কাশেম মাঝি ওই গ্রামের মৃত ওয়াহেদ আলীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের কাশেম মাঝির সঙ্গে একই গ্রামের সফি মিজির জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। ওই বিরোধকে কেন্দ্র করে একাধিকবার সালিস হলেও সফি মিজি সালিসের রায় মানেনি। এ নিয়ে নোয়াখালী জেলা জজ আদালতে একটি মামলা চলমান।

চরজব্বার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মো. তরিকুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘গতকাল সন্ধ্যায় কাশেম তার বাড়ি থেকে স্থানীয় ইমান আলী জামে মসজিদে মাগরিবের নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন। সে সময় আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা সফি তার পথ রোধ করে ধারালো ছুরি দিয়ে বুকের মধ্যে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকেন। কাশেমের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ও মসজিদের মুসল্লিরা এগিয়ে আসলে ঘাতক সফি মিজি দৌড়ে স্থানীয় একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে স্থানীয়রা ধাওয়া করে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। আর গুরুতর অবস্থায় কাশেমকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত ৮টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

বিষয়টি দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করে চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হক বলেন, ‘তাৎক্ষণিক এলাকাবাসী ধাওয়া করে ঘাতক সফি মিজিকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

Comments

The Daily Star  | English