রেকর্ড গড়া লেভানদভস্কিকে বর্ষসেরা হিসেবে দেখছেন বায়ার্ন কোচ

জার্মান বুন্দেসলিগার প্রথম বিদেশি ও সবমিলিয়ে তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ২৫০ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করেছেন বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ত লেভানদভস্কি।
Lewandowski
ছবি: টুইটার

জার্মান বুন্দেসলিগার প্রথম বিদেশি ও সবমিলিয়ে তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ২৫০ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করেছেন বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ত লেভানদভস্কি। বুধবার রাতে ঘরের মাঠে ভলফসবুর্গের বিপক্ষে জোড়া গোলের প্রথমটি করে এই কীর্তি গড়েন তিনি। পোল্যান্ডের এই স্ট্রাইকারের আরেকটি নজরকাড়া পারফরম্যান্সে পিছিয়ে পড়েও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বায়ার্ন। ম্যাচশেষে দলটির কোচ হ্যান্সি ফ্লিক জানিয়েছেন, ফিফার ২০২০ সালের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার লেভানদভস্কির হাতেই দেখছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ফিফার সদরদপ্তরে একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ঘোষণা করা হবে এবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম। গত মৌসুমে বায়ার্নের হয়ে পাঁচটি শিরোপা জেতার পাশাপাশি সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫৫ গোল করেছিলেন লেভানদভস্কি। তিনি ছাড়াও সংক্ষিপ্ত তালিকায় আছেন জুভেন্টাসের পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি।

২০২০ সালের বর্ষসেরা পুরস্কারের সংক্ষিপ্ত তালিকায় বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে রয়েছে বায়ার্নের উপস্থিতি। বর্ষসেরা গোলরক্ষকের দৌড়ে আছেন মানুয়েল নয়্যার। ফ্লিক নিজেও রয়েছেন বর্ষসেরা কোচ হওয়ার দৌড়ে।

flick1
ছবি: টুইটার

ভলফসবুর্গের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জয়ের পর ৫৫ বছর বয়সী এই কোচ বলেছেন, ‘লেভি মাঠের ভেতরে যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি (মাঠের বাইরেও) সে স্কোয়াডের কেন্দ্রে থাকে। সে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড়। তার মতামত ও দৃষ্টিভঙ্গিকে আমরা গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করে থাকি। তাই আমরা সামনে তাকিয়ে আছি। আশা করছি, মানুয়েলের পাশাপাশি লেভিও পুরস্কার জিতবে। দুজনই পুরস্কারের যোগ্য দাবিদার।’

৩২ বছর বয়সী লেভানদভস্কির বুন্দেসলিগায় গোল এখন ২৫১টি। প্রথম ৭৪টি গোল তিনি করেছিলেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের জার্সিতে। দলটির হয়ে চার মৌসুমে ১৩১ ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে বায়ার্নে যোগ দেওয়ার পর আরও বিধ্বংসী স্ট্রাইকারে পরিণত হয়েছেন লেভানদভস্কি। বাভারিয়ানদের হয়ে লিগে তার ১৭৭টি গোল এসেছে মাত্র ২০১ ম্যাচে।

জার্মানির পেশাদার ফুটবলের শীর্ষ লিগে লেভির চেয়ে বেশি গোল আছে কেবল দেশটির দুই সাবেক তারকা জার্ড মুলার (৩৬৫) ও ক্লাউস ফিশারের (২৬৮)। একটি কীর্তিতে অবশ্য ফিশারকে ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। ২৫০ গোল করতে লেভানদভস্কির লেগেছে মোট ৩৩২ ম্যাচ। ফিশারকে এই মাইলফলকে পৌঁছাতে খেলতে হয়েছিল ৪৬০ ম্যাচ। দ্রুততম আড়াইশো গোলের রেকর্ডটা অবশ্য মুলারের দখলেই রয়েছে। তার লেগেছিল মাত্র ২৮৪ ম্যাচ।

Comments

The Daily Star  | English

No fire safety measures despite building owners being notified thrice: fire service DG

There were no fire safety measures at the building on Bailey Road where a devastating fire last night left at least 46 people dead, Fire Service and Civil Defence Director General Brig Gen Md Main Uddin said today

1h ago