অনলাইন কেনাকাটায় হ্যাকারদের প্রতারণার ৯ কৌশল

হোয়াটসঅ্যাপসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যারা অনলাইন শপিং করেন হ্যাকাররা সাধারণত তাদের টার্গেট করে।
ছবি: সংগৃহীত

হোয়াটসঅ্যাপসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যারা অনলাইন শপিং করেন হ্যাকাররা সাধারণত তাদের টার্গেট করে।

অনলাইন ক্রেতাদের ফাঁদে ফেলতে হ্যাকারা সাধারণত নয়টি কৌশল নিয়ে থাকে বলে গতকাল শনিবার গেজেটস নাওর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

১.

বছর শেষে যখন অ্যামাজন ও ফ্লিপকার্টে কেনাকাটার ধুম পড়েছে তখন চীনের হ্যাকাররা ক্রেতাদের টার্গেট করে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা করছে।

সাইবারপিস ফাউন্ডেশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হ্যাকাররা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আকর্ষণীয় লিঙ্ক পাঠিয়ে অনলাইন ক্রেতাদের ফাঁদে ফেলছে।

হ্যাকাররা ‘অ্যামাজন বিগ বিলিয়ন ডে সেল’ ও ‘বিগ বিলিয়ন ডেজ স্পিন দ্য লাকি হুইল’ ওয়েবসাইটের আদলে ভুয়া কন্টেন্ট তৈরি করছে।

তারা ক্রেতাদের পুরস্কার জেতার প্রলোভন দেখিয়ে এমন সব অফার দিচ্ছে বাস্তবে যার কোনো অস্থিত্ব নেই। এসব প্রলোভনে আকৃষ্ট হয়ে সেসব লিঙ্কে ক্লিক করলে পড়তে হচ্ছে হ্যাকারদের ফাঁদে।

২.

ফ্যাং শিয়াও কিং নামে একটি সংগঠনের অধীনে এই ভুয়া লিঙ্কগুলোর ডোমিন নিবন্ধিত হয়েছে মূলত চীনের গুয়াংডং ও হেনান প্রদেশে।

হ্যাকাররা সেসব ডোমিন নিবন্ধন করেছে আলিবাবার ক্লাউড কম্পিউটিং প্লাটফর্মে। তারা সেগুলো হোস্ট করেছে বেলজিয়াম ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে।

৩.

কেউ সেসব লিঙ্কে ক্লিক করলে তাদের ডিভাইসে ভুয়া কোড পাঠানো হচ্ছে। তারপর, গোপনে ফোন থেকে সব তথ্য চলে যাচ্ছে হ্যাকারদের কাছে। সেই কোডের মাধ্যমে হ্যাকাররা অনেক ক্ষেত্রে ব্যাংকে রাখা টাকাও সরিয়ে নিতে পারছে।

৪.

এ ধরনের জালিয়াতি সাধারণত একটি মেসেজের মাধ্যমে হয়ে থাকে। যিনি এ ধরনের লিঙ্ক ওপেন করেন তার কাছে মেসেজে ‘পুরস্কার জেতার’ সংবাদ পাঠানো হয়।

৫.

বিষয়টিকে সাধারণ মানুষের কাছে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে হ্যাকাররা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভুয়া ছবি ও কমেন্টসহ বিভিন্ন ধরনের অ্যাকাউন্ট খুলে থাকে।

৬.

ক্রেতাদের প্রলুব্ধ করতে তারা হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোর অতিরিক্ত ডিসকাউন্ট ও ক্যাশব্যাকের অফার দেয়। এসব লোভনীয় অফারের ফাঁদে পড়ে অনেকে তাদের অ্যামাজন বা ফ্লিপকার্ট অ্যাকাউন্টের তথ্য দিতে বাধ্য হন।

৭.

ক্রেতারা পুরস্কার জেতার আশায় কোনো প্রতিযোগিতায় অংশ নিলে তাদের সামনে বিভিন্ন ভুয়া ওয়েবসাইট তুলে ধরা হয়।

৮.

হ্যাকাররা ক্রেতাদের ভুয়া লিঙ্কে ক্লিক করতে বলে যেখানে তাদেরকে ব্যক্তিগত যোগাযোগের ঠিকানা দিতে হয়।

৯.

হোয়াটসঅ্যাপে সবচেয়ে সাধারণ জালিয়াতি হচ্ছে ‘স্পিন দ্য হুইল’ জালিয়াতি। এটি অন্তত পাঁচ বছর ধরে চলছে। এর মাধ্যমে হ্যাকাররা ভুয়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করে জারা, অ্যাডিডাসসহ অন্যান্য নামি ব্র্যান্ডের গিফট ভাউচারের ভুয়া অফার দিয়ে থাকে।

Comments

The Daily Star  | English

Hefty power bill to weigh on consumers

The government has decided to increase electricity prices by Tk 0.34 and Tk 0.70 a unit from March, which according to experts will have a domino effect on the prices of essentials ahead of Ramadan.

7h ago