রাষ্ট্রায়ত্ত ৬ চিনিকল বন্ধে আসক’র উদ্বেগ

অব্যাহত লোকসান কমাতে গত ১ ডিসেম্বর দেশের ১৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের মধ্যে ছয়টি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

অব্যাহত লোকসান কমাতে গত ১ ডিসেম্বর দেশের ১৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলের মধ্যে ছয়টি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

সংস্থাটির পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাষ্ট্রায়ত্ত পাবনা সুগারমিল, শ্যামপুর সুগারমিল, পঞ্চগড় সুগারমিল, সেতাবগঞ্জ সুগারমিল, রংপুর সুগারমিল ও কুষ্টিয়া সুগারমিল আখ কাটার ভরা মৌসুমে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। চিনিকলগুলোতে আখ মাড়াই ও উৎপাদন বন্ধের ঘোষণায় লাখ লাখ একর জমিতে উৎপাদিত আখ নিয়ে মহাবিপদের সম্মুখীন হয়ে পড়েছেন চাষিরা। বেকার হয়ে পড়েছেন হাজার হাজার চিনিকল শ্রমিক।

বেসরকারি চিনিকলগুলো লাভজনক হলেও রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানগুলোতে লোকসান কেন হচ্ছে, সে প্রশ্ন উঠেছে জানিয়ে এতে আরও বলা হয়, ‘অভিযোগ রয়েছে এর জন্য কর্তৃপক্ষের সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নিতে না পারা, আখের স্বল্পতা, বহু পুরনো যন্ত্রপাতির সাহায্যে উৎপাদন, আখ প্রক্রিয়াজাতকরণে অদক্ষতা, দুর্নীতি ও পরিকল্পিত বিপণন ব্যবস্থার অভাব দায়ী।’

এতে আরও বলা হয়, ‘এ প্রক্রিয়ায় দেশের চিনি সিন্ডিকেটকে অধিক মুনাফা করার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত এক দশকে চিনিকলের লোকসান কাটিয়ে উঠতে বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়েছেন, কিন্তু বেশিরভাগ নির্দেশনা বাস্তবায়িত হয়নি। একটি মহলের স্বার্থ হাসিলের জন্য এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বলে আন্দোলনরত শ্রমিক ও শ্রমিকনেতারা দাবি করছেন।’

ছয়টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকল বন্ধের মতো অদূরদর্শী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনের মাধ্যমে কীভাবে চিনিকলগুলো লাভজনক করে তোলা যায় তা খতিয়ে দেখার এবং কমিটির সুপারিশসমূহ কার্যকরভাবে বাস্তবায়ন করার আহ্বান জানায় আসক।

Comments

The Daily Star  | English

Dozens injured in midnight mayhem at JU

Police fire tear gas, pellets at quota reform protesters after BCL attack on sit-in; journalists, teacher among ‘critically injured’

2h ago