এমবাপের আরও উন্নতি করা প্রয়োজন: পিএসজির নতুন কোচ

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) ডেরায় শুরুটা ভালো হয়নি নতুন কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনোর। অভিষেকেই অপেক্ষাকৃত দুর্বল সেইন্ট ইতেইনের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে দলটি। দলের হোঁচটে খেলোয়াড়দের দুর্বলতা দেখছেন এ আর্জেন্টাইন কোচ। এমনকি সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপেরও অনেক উন্নতি করা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।
kylian mbappe
ছবি: এএফপি

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) ডেরায় শুরুটা ভালো হয়নি নতুন কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনোর। অভিষেকেই অপেক্ষাকৃত দুর্বল সেইন্ট ইতেইনের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে দলটি। দলের হোঁচটে খেলোয়াড়দের দুর্বলতা দেখছেন এ আর্জেন্টাইন কোচ। এমনকি সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপেরও অনেক উন্নতি করা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

বুধবার রাতে ইতিইনের মাঠে ১-১ ড্র করে ফিরেছে পিএসজি। ম্যাচের ১৯তম মিনিটেই রোমাইন হামুমার গোলে পিছিয়ে পড়ে পচেত্তিনোর শিষ্যরা। অবশ্য তিন মিনিট পরই মোইজে কিনের গোলে সমতায় ফেরে দলটি। কিন্তু এরপর আর গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই।

ম্যাচ শেষে পরিবর্তনের ডাকই দিলেন পিএসজির নতুন কোচ। এমবাপেসহ দলের সবারই উন্নতি প্রয়োজন জানিয়ে বলেন, 'আমি অবশ্যই তার পারফরম্যান্সে খুশি, তবে তার আরও উন্নতি করা দরকার। আমি নিশ্চিত সে গোল করতে এবং আরও ভাল খেলতে এবং ম্যাচ জিততে চায়। অবশ্যই সে হতাশ। সকল খেলোয়াড়ের উন্নতি করা প্রয়োজন এবং দলেরও উন্নতি হওয়া প্রয়োজন।'

পিএসজিতে যোগ দিয়েছেন মাত্র তিন হয়। তাই এখনও নতুন পরিবেশ সেভাবে মানিয়ে নিতে পারেননি পচেত্তিনো। তবে শুরুতেই হোঁচট খাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই হতাশ এ কোচ, 'এটি কেবল শুরু হলো, আমরা এখানে মাত্র তিন দিন আগে এসেছি। আমরা হতাশ কারণ আমরা ম্যাচ জিততে পারিনি। আমি মনে করি আমরা দ্বিতীয়ার্ধে গোল করার যথেষ্ট সুযোগ তৈরি করেছি। আমাদের দুর্ভাগ্য যে আমরা গোল করতে পারিনি এবং তিন পয়েন্ট পাইনি।'

তবে এ ম্যাচ দিয়ে লম্বা সময় পর মাঠে ফিরলেন টটেনহ্যাম হটস্পার্সের সাবেক এ কোচ। আর এ সময়ে পরিবর্তন হয়েছে অনেক কিছুরই। দর্শকহীন মাঠে কিছুটা অদ্ভুতই লেগেছে এ আর্জেন্টাইন কোচের, 'আমি ১৪ মাস ফিরে এসে খুশি। তবে অদ্ভুত অনুভব করেছি, শেষবার আমি যখন ডাগআউটে ছিলাম তখন ৬২ হাজার দর্শকের সামনে ছিলাম।'

Comments

The Daily Star  | English

Sea-level rise in Bangladesh: Faster than global average

Bangladesh is experiencing faster sea-level rise than the global average of 3.42mm a year, which will impact food production and livelihoods even more than previously thought, government studies have found.

1h ago