বাংলাদেশের বোলিংয়ে কাহিল দশা উইন্ডিজের

মোস্তাফিজুর রহমানের পেসের পাশাপাশি মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাকিব আল হাসানের স্পিনের সামনে বেসামাল হয়ে পড়েছে তারা।
west indies- bangladesh
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

প্রথম ওয়ানডেতে বিবর্ণ ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী দেখিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয় ম্যাচেও তার কোনো পরিবর্তনের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। মোস্তাফিজুর রহমানের পেসের পাশাপাশি মেহেদী হাসান মিরাজ ও সাকিব আল হাসানের স্পিনের সামনে বেসামাল হয়ে পড়েছে তারা।

শুক্রবার তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও উইন্ডিজ। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ফের বিপর্যয়ে পড়েছে ক্যারিবিয়ানরা। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, ২৫ ওভার শেষে তাদের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৭২ রান। উইকেটে আছেন মাত্রই নামা রেমন রেইফার ও রভম্যান পাওয়েল।

ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ। প্রথম ম্যাচের মতোই সুনীল আমব্রিসকে ফিরিয়ে দেন তিনি। তার ব্যাটের কানায় লেগে বল চলে যায় গালিতে। সেখানে ক্যাচ লুফে নেন মিরাজ। ১৫ বলে ৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন আমব্রিস।

দলীয় ১০ রানে প্রথম উইকেট হারানো উইন্ডিজ পাওয়ার প্লেতে রানের চাকায় দম দিতে পারেনি। ১০ ওভার শেষে তাদের স্কোর দাঁড়ায় ১ উইকেটে ২২ রান। শামুক গতিতে এগোতে থাকা দলটিকে এরপর পথহারা করে দেন মিরাজ ও সাকিব। মাত্র ৫ রানের মধ্যে ৪ উইকেট খোয়ায় তারা।

অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা ওপেনার কেয়র্ন ওটলিকে থামান মিরাজ। কাভারে সহজ ক্যাচ নেন বাংলাদেশ দলনেতা তামিম। ওটলি ৪৪ বলে করেন ২৪ রান। ব্যক্তিগত ২১ রানে তিনি জীবন পেয়েছিলেন হাসান মাহমুদের বলে। কঠিন ক্যাচ তালুবন্দি করতে তখন ব্যর্থ হন তামিমই।

৩৬ রানে দ্বিতীয় উইকেটের পতন হওয়ার পর দিশেহারা হয়ে পড়ে উইন্ডিজ। একই ওভারে মিরাজ বোল্ড করে দেন জশুয়া দা সিলভাকে। পরের ওভারে আন্দ্রে ম্যাকার্থি শিকার হন সাকিবের। আগের ম্যাচের মতো এদিনও দৃষ্টিকটু শটে বোল্ড হয়ে যান তিনি। ফলে আক্রমণে এসেই উইকেটের স্বাদ পান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব।

বিপদের মাঝে অধিনায়ক মোহাম্মদের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউট হয়ে যান কাইল মায়ার্স। নাজমুল হোসেন শান্তর থ্রোতে স্টাম্প ভেঙে দেন মুশফিকুর রহিম। ফলে ৪১ রানের মাথায় সফরকারীদের অর্ধেক ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফেরে।

এরপর এনক্রুমা বোনারের সঙ্গে প্রতিরোধের চেষ্টায় ছিলেন অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদ। ২৬ রানের ছোট জুটির পর ফের আঘাত তাদের ইনিংসে। সাকিবের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন ২৬ বলে ১১ করা জেসন।

সঙ্গী হারিয়ে টেকেননি বোনার। হাসানের ডেলিভারি কাট করতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বল তার ব্যাটে লেগে উইকেট ভেঙে যায়। ২৫ বলে ২০ রান আসে বোনারের ব্যাট থেকে। ফলে অর্ধেক ওভার শেষ হওয়ার আগেই ৭ উইকেটের পতন ঘটে উইন্ডিজের।

Comments

The Daily Star  | English

Signal 7 at Payra, Mongla as Cyclone Remal forms over Bay

Cox’s Bazar, Ctg maritime ports asked to hoist Signal 6

2h ago