এ মাসেই চালু হচ্ছে কাজীরহাট-আরিচা ফেরি সার্ভিস

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর চালু হতে যাচ্ছে পাবনার কাজীরহাট ও মানিকগঞ্জের আরিচা রুটে ফেরি সার্ভিস। বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর যানবাহনের অতিরিক্ত চাপ কমাতে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় এই উদ্যোগ নিয়েছে। ফেরি সার্ভিস চালু করতে কাজীরহাট ও আরিচা রুটে তৈরি করা হয়েছে নতুন চ্যানেল। নদীর দুই পাড়ে নতুন করে দুটি ফেরি ঘাট স্থাপন করা হয়েছে। এখন চলছে ফেরি ঘাটের সংযোগ সড়ক মেরামতের কাজ।
Kazirhat_Ferry_4Feb21.jpg
দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর চালু হতে যাচ্ছে পাবনার কাজীরহাট ও মানিকগঞ্জের আরিচা রুটে ফেরি সার্ভিস। ছবি: স্টার

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর চালু হতে যাচ্ছে পাবনার কাজীরহাট ও মানিকগঞ্জের আরিচা রুটে ফেরি সার্ভিস। বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর যানবাহনের অতিরিক্ত চাপ কমাতে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় এই উদ্যোগ নিয়েছে। ফেরি সার্ভিস চালু করতে কাজীরহাট ও আরিচা রুটে তৈরি করা হয়েছে নতুন চ্যানেল। নদীর দুই পাড়ে নতুন করে দুটি ফেরি ঘাট স্থাপন করা হয়েছে। এখন চলছে ফেরি ঘাটের সংযোগ সড়ক মেরামতের কাজ।

নিয়মিত পরিচালনায় যাওয়ার আগে পরীক্ষামূলকভাবে ফেরি পরিচালনা শুরু করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন সংস্থা (বিআইডব্লিউটিসি)। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি মাসেই আনুষ্ঠানিকভাবে কাজীরহাট-আরিচা ফেরি সার্ভিস চালু করা হবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমোডোর গোলাম মো. সাদেক গতকাল কাজীরহাট ও আরিচা ফেরিঘাট পরিদর্শন করেছেন। আমন্ত্রিত সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ফেরি সার্ভিস চালু করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু সেতু চালু হওয়ার পরে এ অঞ্চলের ফেরি সার্ভিসের চাহিদা কমে আসে। ফেরি ও নব্যতা সংকটের কারণে সার্ভিস চালু রাখা সম্ভব হয়নি। সেসব সংকট দূর হওয়ায় আবারও কাজীরহাট-আরিচা রুটে ফেরি সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

বারবার নব্যতা ও ফেরি সংকটের কারণে ২০০৮ সালে কাজীরহাট-আরিচা রুটে ফেরি চলাচল প্রায় সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়। কয়েকবার ফেরি চালুর উদ্যোগ নেওয়া হলেও তা স্থায়ী হয়নি।

বিআইডব্লিউটিসি’র উপমহাব্যবস্থাপক জিললুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘কাজীরহাট-আরিচা ফেরি সার্ভিস চালু করতে ১৪ কিলোমিটার নদীপথ তৈরি করা হয়েছে। কাজীরহাট ও আরিচায় দুটি নতুন ফেরি ঘাট স্থাপন করা হয়েছে। আনুসাঙ্গিক কাজ এখনো চলছে। সব ঠিক থাকলে এ মাসের শেষের দিকে বাণিজ্যিকভাবে এই রুটে ফেরি সার্ভিস চালু করা হবে। প্রথম পর্যায়ে চারটি ফেরি চলবে, চাহিদা বাড়লে ফেরির সংখ্যাও বাড়ানো হবে।’

যথা সময়ে ফেরি পাওয়ার বিষয়ে সন্দিহান পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা। ঢাকা-পাবনা রুটে চলা আন্তঃজেলা বাসের চালক ফারুক হোসেন বলেন, ‘পাবনা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে ঢাকার গাবতলী বাসস্ট্যান্ডের দূরত্ব ২৭০ কিলোমিটার। কাজীরহাট-আরিচা রুটে দূরত্ব ১৪০ কিলোমিটার। এই ফেরি সার্ভিস চালু হলে পরিবহন খরচ কমবে। কিন্তু দেখা যায়, নিয়মিত ফেরি পাওয়া যায় না। তখন যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়েন।’

কাজীরহাট ফেরি ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক সাব্বির রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘ইতোমধ্যে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের সঙ্গে কর্তৃপক্ষের বৈঠক হয়েছে। তারা ফেরি সার্ভিসকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। চাহিদা বাড়লে ফেরির সংখ্যা বাড়ানো হবে, তাই নিয়মিত পাওয়া নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না।’

Comments

The Daily Star  | English

Recovering MP Azim’s body almost impossible: DB chief

Killers disfigured the body so much that it would be tough to identify those as human flesh

44m ago