হাঙ্গেরি চায়নি, বাংলাদেশ ৫ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন দিতে চেয়েছিল

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্যভুক্ত হাঙ্গেরিকে বাংলাদেশ শুভেচ্ছা-স্বরূপ ভারত থেকে কেনা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার পাঁচ হাজার ডোজ করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। সেই ভ্যাকসিন নেবে না বলে জানিয়েছে মধ্য ইউরোপের দেশটি।
প্রতীকী ছবি | সংগৃহীত

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্যভুক্ত হাঙ্গেরিকে বাংলাদেশ শুভেচ্ছা-স্বরূপ ভারত থেকে কেনা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার পাঁচ হাজার ডোজ করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। সেই ভ্যাকসিন নেবে না বলে জানিয়েছে মধ্য ইউরোপের দেশটি।

গতকাল বৃহস্পতিবার গণমাধ্যম হাঙ্গেরি টুডে’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

হাঙ্গেরির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার পাঁচ হাজার ডোজ করোনা ভ্যাকসিন শুভেচ্ছা-স্বরূপ হাঙ্গেরিকে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল, হাঙ্গেরি এই ভ্যাকসিন নিতে চায় না।

তবে, ভ্যাকসিন গ্রহণ না করার কারণ জানানো হয়নি।

দেশটির ট্যাবলয়েড পত্রিকা ব্লিক গত বুধবার জানিয়েছিল, সংযুক্ত যমজ শিশু রাবেয়া ও রোকাইয়াকে সফল অপারেশনের মাধ্যমে আলাদা করা এবং অ্যাকশন ফর ডিফেন্সলেস পিপল ফাউন্ডেশনের হাঙ্গেরিয়ান চিকিৎসকদের ৫০০ রোগীর প্ল্যাস্টিক সার্জারির কৃতজ্ঞতা স্বরূপ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার পাঁচ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন হাঙ্গেরিকে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল বাংলাদেশ।

হাঙ্গেরির পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সরকারপন্থি ম্যাগেয়ার নেমজেৎ পত্রিকাকে বলেছে, ‘আমরা এই প্রস্তাবের জন্যে ধন্যবাদ জানাই। কিন্তু, এটা গ্রহণ করছি না।’ তবে, কেন এই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে, তা উল্লেখ করা হয়নি।

গত রোববার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছিলেন, ‘হাঙ্গেরি আমাদের কাছে পাঁচ হাজার ডোজ টিকা চেয়েছে। আমাদের যে স্টক আছে, সেখান থেকে আমরা দেবো। বলিভিয়াও আমাদের কাছে টিকা চেয়েছে, সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আজ শুক্রবার দুপুরে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আমি এ বিষয় নিয়ে আর কোনো কথা বলতে চাই না।’

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশের কাছে ৫ হাজার ভ্যাকসিন চেয়েছে হাঙ্গেরি

Comments

The Daily Star  | English

'Why did they kill my father?'

Slain MP’s daughter demands justice, fair investigation

1h ago