ইলিয়াস কাঞ্চনকে নিয়ে শাহজাহান খানের ‘আপত্তিকর’ বক্তব্যের নিন্দা নিসচা’র

নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চনকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুমকি ও তাকে নিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাজাহান খানের ‘আপত্তিকর’ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে নিসচা।

নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চনকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুমকি ও তাকে নিয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাজাহান খানের ‘আপত্তিকর’ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে নিসচা।

আজ শনিবার নিসচার এক বিবৃতিতে ইলিয়াস কাঞ্চনকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করার হুমকি ও তার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার, অশালীন বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও ওই নিন্দা জানানো হয়।

এর আগে, গতকাল শুক্রবার বিকেলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন রাজশাহী বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটির সম্মেলনে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সংসদ সদস্য শাজাহান খান ইলিয়াস কাঞ্চনকে নিয়ে ওই বক্তব্য দেন।

নিসচার বিবৃতিতে বলা হয়, সড়ক দুর্ঘটনা বিষয়ে নিসচার চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন ব্যক্তিস্বার্থে কোনো কিছু করেননি। সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ প্রণয়ন বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিলে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বিষয়টি নিয়ে চিন্তা ভাবনা করার পর এর গুরুত্ব বিবেচনা করে সকলের মতামতের ভিত্তিতে তা প্রণয়নের নির্দেশ দেন। সকলের মতামতে আইনটি মহান জাতীয় সংসদে পাস হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বর্তমান সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আইনটি সম্পর্কে সকলকে সচেতন হতে পরামর্শ দেন। সুতরাং নিসচা’র চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন সম্পর্কে যে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা হয়েছে তা কখনোই গ্রহণ করা যায় না।

এতে আরও উল্লেখ করা হয়, একজন শিক্ষিত ব্যক্তি ও আইন প্রণেতা হয়ে অন্যকে ‘বেকুব‘ বলা কতটুকু সভ্যতার পরিচয় বহন করে এবং এটি তার নিজের ওপর বর্তায় কিনা তা ভেবে দেখার বিষয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, শাজাহান খান তার বক্তব্যে পরিবহন শ্রমিকদের চিত্রনায়ক ও নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চনকে অবাঞ্ছিত করার কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, ইলিয়াস কাঞ্চন নাকি সবসময় পরিবহন চালক শ্রমিকদের বিরুদ্ধে কথা বলেন। প্রকৃত সত্য হলো ইলিয়াস কাঞ্চন সবসময় সড়ক দুর্ঘটনার বিরুদ্ধে কথা বলেন, দুর্ঘটনার কারণগুলো ব্যাখ্যা করেন এবং দুর্ঘটনার সাথে জড়িত দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কথা বলেন।

নিসচা মনে করে, শাজাহান খানের এসব মন্তব্যে কোনো চালক যদি উদ্বুদ্ধ হয়ে বেপরোয়াভাবে আইন অমান্য করে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটায়, সেই দুর্ঘটনায় যদি কারো মৃত্যু হয়, তাহলে চালকের সঙ্গে সেই মৃত্যুর দায়ভার শাজাহান খানকেও বহন করতে হবে। সেক্ষেত্রে কোনো মামলা হলে তিনিও অভিযুক্ত হবেন। তিনি কোনভাবেই এর দায় এড়াতে পারেন না।

শাজাহান খান তার বিরুদ্ধে আদালতে চলমান মানহানির মামলা নিয়ে বলেছেন, এই মামলায় নাকি উল্টো ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে বিচার হবে। নিসচা মনে করে এটি সরাসরি আদালত অবমাননার সামিল।

বিষয়টি জানতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাজাহান খানের সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

Comments