এমবাপে-ইকার্দির গোলে জিতল পিএসজি

প্রতিপক্ষের মাঠে দলের অন্যতম সেরা তারকা নেইমারকে ছাড়া মাঠে নেমেছিল প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। কিন্তু তার অভাব বুঝতে দেননি আরেক তারকা কিলিয়ান এমবাপে ও মাউরো ইকার্দি। এ দুই তারকার গোলে অলিম্পিক মার্সেইকে সহজেই হারিয়েছে প্যারিসের ক্লাবটি।
ছবি: টুইটার

প্রতিপক্ষের মাঠে দলের অন্যতম সেরা তারকা নেইমারকে ছাড়া মাঠে নেমেছিল প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। কিন্তু তার অভাব বুঝতে দেননি আরেক তারকা কিলিয়ান এমবাপে ও মাউরো ইকার্দি। এ দুই তারকার গোলে অলিম্পিক মার্সেইকে সহজেই হারিয়েছে প্যারিসের ক্লাবটি।

রোববার লিগ ওয়ানের ম্যাচে মার্শেইকে ২-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি। ২৪ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে দলটি। সমান ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে লিল অলিম্পিক স্পোর্টিং ক্লাব। ৫২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অলিম্পিক লিওঁ। ২২ ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে নবম স্থানে রয়েছে মার্সেই।

এদিন ম্যাচের নবম মিনিটেই পাল্টা আক্রমণ থেকে এগিয়ে যায় পিএসজি। ভেরাত্তির হেড থেকে বল পেয়ে প্রতিপক্ষ সীমানায় ঢুকে এমবাপেকে দারুণ এক থ্রু পাস বাড়ান আনহেল দি মারিয়া। বল ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কোণাকোণি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এ ফরাসি তরুণ।

তবে দুই মিনিট পরই ধাক্কা খায় পিএসজি। অস্বস্তি নিয়ে মাঠ ছাড়েন দি মারিয়া। তার অনুপস্থিতিতেই যেন মাঝমাঠের দখল পেয়ে যায় মার্সেই। একের পর এক বেশ কিছু আক্রমণ করে দলটি। কিন্তু ধারা বিপরীতে উল্টো ২৪তম মিনিটে আরও একটি গোল হজম করে মার্সেই। ডান প্রান্ত থেকে আলেসান্দ্রো ফ্লোরেন্সির ক্রসে দুরূহ কোণ থেকে অসাধারণ এক ব্যাক হেডে গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে তার মাথার উপর দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ইকার্দি।

দুরূহ কোণ থেকে গোল দিলেও ৪৭তম মিনিটে অবিশ্বাস্য এক সুযোগ মিস করেন এ আর্জেন্টাইন। বাঁ প্রান্ত থেকে গোলমুখে তাকে একেবারে ফাঁকায় বল দিয়েছিলেন এমবাপে। প্রয়োজন ছিল একটি টোকার। কিন্তু বল পায়েই লাগাতে পারেননি ইকার্দি।

৫০তম মিনিটে বিপদ প্রায় ডেকে এনেছিলেন পিএসজি গোলরক্ষক সের্জিও রিকো। বাউবুকা কামারার দূরপাল্লার শট ঠিকভাবে ফেরাতে পারেননি। বল হাত ফস্কে গেলেও লক্ষ্যে না থাকায় সে যাত্রা বেঁচে যায় দলটি। পরের মিনিটে ভালারে জার্মেইর হেড আটকান মার্কিনিয়োস।

৬৬তম মিনিটে ইকার্দির বদলি হিসেবে নেইমারকে মাঠে নামান কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো। ৭৭তম মিনিটে ভেরাত্তির বাড়ানো বলে গোলরক্ষক একা পেয়ে গিয়েছিলেন এমবাপে। কিন্তু নিজে শট না করে আরও নিশ্চিত হতে নেইমারকে পাস দেন তিনি। কিন্তু নেইমার বলের নিয়ন্ত্রণই নিতে পারেননি।

এরপরও গোল করার বেশ কিছু সুযোগ পেয়েছিল দুই দল। কিন্তু তা থেকে গোল না হলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে পিএসজি। তবে নির্ধারিত সময়ের শেষ দিকে মার্সেইয়ের হতাশা বাড়িয়ে লাল কার্ড দেখেন ফরাসি মিডফিল্ডার দিমিত্রি পায়েত।

Comments

The Daily Star  | English

India visit brief, but very fruitful: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said, even though brief, her recent visit to India was very successful

1h ago