‘দ্য হানড্রেড’ টুর্নামেন্টের ড্রাফটে সাকিব-তামিম

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের নতুন আইডিয়া হিসেবে চলতি বছরের জুলাই মাসে হতে যাচ্ছে ‘দ্য হ্যানড্রেড’ বা ১০০ বলের আসর। টুর্নামেন্টটির প্রথম আসর হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালেই। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির কারণে তা পিছিয়ে যায় এক বছর।
Shakib Al Hasan & Tamim Iqbal
ফাইল ছবি: বিসিবি

একশো বলের ক্রিকেট ‘দ্য হ্যানড্রেড’ টুর্নামেন্টের ৭ জন বিদেশি তারকার ফাঁকা জায়গা পূরণে সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালসহ নাম পাঠিয়েছেন ২৫২ জন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। সাকিব-তামিম ছাড়া সেখানে আছেন কাগিসো রাবাদা, কুইন্টেন ডি কক, কাইরন পোলার্ড, নিকোলাস পুরান ও ডেভিড ওয়ার্নারের মতন ক্রিকেটাররা। তাদের প্রত্যেকেই নিলামে উঠবেন সর্বোচ্চ ভিত্তিমূল্য এক লাখ পাউন্ডে।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের নতুন আইডিয়া হিসেবে চলতি বছরের জুলাই মাসে হতে যাচ্ছে ‘দ্য হ্যানড্রেড’ বা ১০০ বলের আসর। টুর্নামেন্টটির প্রথম আসর হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালেই। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির কারণে তা পিছিয়ে যায় এক বছর।

২০১৯ সালের অক্টোবরেই হয়ে গিয়েছিল টুর্নামেন্টটির প্রথম ড্রাফট। নাম থাকলেও সেবার দল পাননি বাংলাদেশের কেউ।  সেই ড্রাফট থেকে খেলোয়াড়দের টেনে বেশিরভাগকেই ধরে রেখেছে দলগুলো। যদিও পারস্পারিক সমঝোতার ভিত্তিতে পারিশ্রমিক কমেছে ২০ শতাংশ।

আগের ড্রাফটে দল পাওয়া তারকাদের মধ্যে জায়গা ধরে রেখেছেন রশিদ খান (ট্রেন্ট রকেটস), আন্দ্রে রাসেল (সাউদার্ন ব্রেভ), অ্যারন ফিঞ্চ (নর্থান সুপারচার্জারস) এবং কেইন উইলিয়ামসন (বার্মিংহাম ফনিংক্স)।

আগামী সপ্তাহে নতুন করে ৩৫ জন ক্রিকেটারকে ড্রাফট থেকে বিভিন্ন দলে ভিড়তে দেখা যাবে। এরমধ্যে দল পাবেন ২৮ জন ঘরোয়া (ইংল্যান্ডের) ও ৭ জন বিদেশী ক্রিকেটার।

ক্রিকেটওয়েবসাইট ইএসপিএন জানায়, ২৩ ফেব্রুয়ারি ভার্চুয়াল সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হবে এই ড্রাফট।

জুলাই মাসে বিদেশি তারকাদের মধ্যে যারা ফাঁকা থাকবেন তাদের দল পাওয়া সুযোগ বেশি।  নিউজিল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার জুলাইয়ের শেষ থেকে অগাস্ট পর্যন্ত খেলার সূচি আছে। অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানের সঙ্গে ঘরের মাঠে খেলা আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও। পুরান ও পোলার্ডকে তাই পুরো সময়ের জন্য নাও পাওয়া যেতে পারে।

২০২০ সালের সূচিতে স্টিভেন স্মিথ ও মিচেল স্টার্ক ওয়েলস ফায়ারে চুক্তিভুক্ত হয়েছিলেন। এই দুজনই নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন। থাকতে পারছেন না ট্রেন্ট বোল্টও।

এবার ১০ জন খেলোয়াড় আছেন এক লাখ পাউন্ডের সর্বোচ্চ ক্যাটাগরিতে। তারা হলেন, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, বাবর আজম, কুইন্টেন ডি কক, লুকি ফার্গুসেন, জেসন হোল্ডার, কাইরন পোলার্ড, নিকোলাস পুরান, কাগিসো রাবাদা, ডেভিড ওয়ার্নার।

তবে টুর্নামেন্টের সময়টায় অস্ট্রেলিয়ার ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থাকায় ওয়ার্নারের ব্যাপারে অনিশ্চয়তায় থাকবে দলগুলো।

৮০ হাজার পাউন্ডের ভিত্তিমূল্যে ড্রাফটে আছেন, শহীদ আফ্রিদি, জেই রিচার্ডসন, ইমরান তাহির। ৬০ হাজার পাউন্ডে নিলামে উঠবেন, শাদাব খান, ক্রিস মরিস, ড্যান ক্রিস্টিয়ান, ডেইল স্টেইন।

৪৮ হাজার পাউন্ডে থাকছেন ডোয়াইন ব্র্যাভো, ডেভিড মিলার, মিচেল স্ট্যান্টনার। কলিন ইনগ্রাম, হেনরিক ক্লাসেন, তাবরাইজ শামসি, রহমতুল্লাহ গুরবাজের কোন ভিত্তিমূল্য ধরা হয়নি।

১৩ দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে আছেন আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, ওমান ও যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেটাররাও। একমাত্র নেপালি ক্রিকেটার হিসেবে আছেন সন্দিপ লামিচানে।

আইপিএলের বাইরে অন্য কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলার অনুমতি না থাকায় স্বাভাবিকভাবেই নেই কোন ভারতীয় ক্রিকেটার। 

নতুন এই টুর্নামেন্টে প্রতিটি ইনিংস হবে ১০০ বলের। 

Comments

The Daily Star  | English

Is Raushan's political career coming to an end?

With Raushan Ershad not participating in the January 7 parliamentary election, questions have arisen whether the 27-year political career of the Jatiya Party chief patron and opposition leader is coming to an end

1h ago