বেলারুশে প্রেসিডেন্টবিরোধী আন্দোলনের ভিডিও করায় দুই নারী সাংবাদিকের কারাদণ্ড

পোল্যান্ডভিত্তিক টিভি নিউজ চ্যানেল বেলসাতের দুই নারী সাংবাদিককে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে বেলারুশের একটি আদালত।
সাংবাদিক কাতিরিয়েনা আন্ড্রেয়েভা ও দরিয়া চোলসোভা। ছবি: রয়টার্স

পোল্যান্ডভিত্তিক টিভি নিউজ চ্যানেল বেলসাতের দুই নারী সাংবাদিককে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে বেলারুশের একটি আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে আন্দোলন চলাকালীন ভিডিও ধারণ করায় তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। গ্রেপ্তার হওয়া দুই নারী সাংবাদিক হলেন, কাতিরিয়েনা আন্ড্রেয়েভা (২৭) ও দরিয়া চোলসোভা (২৩)।

ওই দুই সাংবাদিককে গত নভেম্বর মাসে একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তারা এক বিক্ষোভকারীর হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর দেশজুড়ে প্রতিবাদ সমাবেশের ভিডিও ধারণ করেছিলেন।

গ্রেপ্তারের পর দুই নারী সাংবাদিকই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন। তাদের কাছ থেকে একটি ভিডিও ক্যামেরা, একটি মাইক্রোফোন, মোবাইল ফোন, ফ্ল্যাশ ড্রাইভ ও প্রেস জ্যাকেট জব্দ করে আদালতে প্রমাণ হিসেবে তোলা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার শুনানিতে এই দুই সাংবাদিকই হাতকড়া পরা অবস্থায় ‘ভি’ চিহ্ন দেখিয়েছেন।

গত বছর লুকাশেঙ্কোর শাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে ৩৩ হাজারের বেশি বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে। বিক্ষোভে ব্যাপক সহিংসতাও হয়।

দুই নারী সাংবাদিকের গ্রেপ্তারের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা। সাংবাদিকদের জন্য নিউইয়র্ক-ভিত্তিক কমিটি কর্তৃপক্ষকে ওই দুই নারী সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ‘অযৌক্তিক’ অভিযোগ প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির আহ্বান জানায়।

কাতিরিয়েনা আন্ড্রেয়েভা এর আগে একটি বিবৃতিতে বলেন, ‘যতবার আমি কাজ করতে গিয়েছি, আমি আমার স্বাস্থ্য ও জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছিলাম। আমি রাবার বুলেট থেকে পালিয়েছি, গ্রেনেডের বিস্ফোরণ থেকে জীবন বাঁচিয়েছি, সহিংসতা থেকে নিজেকে রক্ষা রেখেছি। আমার সহকর্মীরা আমার মতো ভাগ্যবান না, তারা অনেকেই নিজেকে রক্ষা করতে পারেননি। আমার সব কিছুই আছে— তারুণ্য আছে, ভালোবাসার চাকরি আছে, খ্যাতি আছে ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আমার বিবেক আছে।’

Comments