জাবি শিক্ষার্থীদের হলে অবস্থানের ঘোষণা, প্রশাসন চায় হল ছেড়ে যাক শিক্ষার্থীরা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) আন্দোলন স্থগিত ঘোষণার পাশাপাশি আবাসিক হলগুলোতে অবস্থানের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। প্রশাসন চায় হল ছেড়ে যাক শিক্ষার্থীরা।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। স্টার ফাইল ফটো

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) আন্দোলন স্থগিত ঘোষণার পাশাপাশি আবাসিক হলগুলোতে অবস্থানের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। প্রশাসন চায় হল ছেড়ে যাক শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারীদের একজন পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী তাবিয়া ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘আজ মঙ্গলবার বেলা ১২টায় বিক্ষোভ মিছিল করার কথা ছিল, তা স্থগিত করা হয়েছে।’

নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ৪৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নুশিন আদিবা গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমাদের প্রায় সব দাবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন মেনে নিয়েছে। তারা আমাদের যথেষ্ট নিরাপত্তা দিয়েছেন। আমাদের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। প্রশাসন বিচারের বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছে। তাই আমাদের এই কর্মসূচি ও আন্দোলন আপাততঃ স্থগিত করছি।’

হলে থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যেহেতু এই মুহূর্তে অনেকের কোথাও যাওয়া সুযোগ নেই তাই আমরা হলে থাকার সিদ্ধান্তটি এখনো বহাল রেখেছি। একই সঙ্গে রাষ্ট্রীয় প্রজ্ঞাপনের ওপর আমাদের পূর্ণ শ্রদ্ধা রয়েছে। সেই জায়গা থেকে আমরা নিজেদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাটুকু রেখে কাজ করার চেষ্টা করছি।’

শিক্ষার্থীদের অনেকের এই মুহূর্তে হল ছেড়ে নিজেদের বাড়িতে চলে যাওয়ার মতো অবস্থা না থাকায় হল ছাড়ার বিষয়ে প্রক্টরাল বডি শিক্ষার্থীদের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় রাখছেন বলেও সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন তারা।

প্রশাসনের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোতাহের হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘প্রাধ্যক্ষ কমিটির মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে স্ব স্ব হল প্রাধ্যক্ষ তাদের হলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের বুঝাবেন তারা যেন হল ছেড়ে দেয়। শিক্ষার্থীরা হল না ছাড়ার আগ পর্যন্ত প্রাধ্যক্ষরা তাদের টিম নিয়ে সেখানেই অবস্থান করবেন।’

এরপরও যদি শিক্ষার্থীরা হল না ছাড়েন তাহলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা চাপ প্রয়োগ করতে চাচ্ছি না। প্রয়োজনে আবার মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেব।’

Comments

The Daily Star  | English

Babar Ali: Another Bangladeshi summits Mount Everest

Before him, Musa Ibrahim (2010), M.A. Muhit (2011), Nishat Majumdar (2012), and Wasfia Nazreen (2012) successfully summited Mount Everest. Mohammed Khaled Hossain summited Mount Everest in 2013 but died on his way down

1h ago