‘আ. লীগ নিজেদের ক্ষমতা, দুর্নীতির বৃত্ত তৈরির জন্য জাতিকে ধ্বংস করে দিচ্ছে’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার রাষ্ট্রকে পুরোপুরি দলীয়করণ করেছে। তারা এই রাষ্ট্রকে অকার্যকর ও একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। স্টার ফাইল ছবি

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার রাষ্ট্রকে পুরোপুরি দলীয়করণ করেছে। তারা এই রাষ্ট্রকে অকার্যকর ও একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

তিনি বলেন, ‘শুধু নিজেদের ক্ষমতা, দাম্ভিকতা, আত্মম্ভরিতা আর দুর্নীতির বৃত্ত তৈরি করার জন্য তারা গোটা জাতিকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।’

আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে বাংলাদেশে ছাত্র ফোরাম ও উত্তর ছাত্র ফোরামের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কার্টুনিস্ট কিশোর জেল থেকে বেরিয়ে যে বিবৃতি দিয়েছেন, সেই বিবৃতি থেকে বুঝা যায়, ভয়ংকর একটা শক্তি এই সরকারের আড়াল থেকে যারা এই সরকারের বিরোধিতা করছে, রাষ্ট্রপ্রধানের বিরোধিতা করছে, তাদেরকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার জন্য অমানবিক নির্যাতন করছে।’

‘মুশতাক আহমেদকে লেখার অপরাধে আর কিশোরকে কার্টুন আঁকার অপরাধে নির্মম অত্যাচার করে মাসের পর মাস আটক করে রাখা হয়েছে। একজন অবসরপ্রাপ্ত মেজর মোরসালীন একবছর ধরে আটক আছেন। তাকেও লেখার কারণে তুলে নিয়ে গেছে। পত্রিকাতে আছে যে, কত মানুষকে, শিশুকে, কত বয়োজ্যেষ্ঠদের তুলে নিয়ে গেছে, জেলে নিয়ে গেছে শুধু সরকারের সমালোচনা করার অপরাধে’, যোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমার সন্তান একটা সুস্থ পরিবেশে মানুষ হতে পারবে না, আমরা ভাই একটা সত্য কথা উচ্চারণ করতে পারবে না, আমার বোন নিরাপদে রাস্তায় চলাচল করতে পারবে না, আমার মা সন্তানকে একটু ভালোভাবে দেখতে পর্যন্ত পারবে না, এজন্য কি আমরা দেশটাকে স্বাধীন করেছিলাম?’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের বাংলাদেশকে তারা লুটে নিয়ে যাচ্ছে, হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে নিয়ে যাচ্ছে। এই অবস্থা থেকে রক্ষা পেতে হলে আসুন আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই ভয়াবহ ফ্যাসিস্ট দানবকে পরাজিত করি।’

ফখরুলের দাবি, সারাদেশে বিএনপির ৩৫ লাখ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। এখন তাদের রাস্তায় নামতে দেওয়া হয় না। পথে বেরিয়ে কথা বলতে দেওয়া হয় না।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, বাংলাদেশ ছাত্র ফোরামের প্রধান উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মীর হেলাল, বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলিম, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল এবং ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন প্রমুখ।

Comments

The Daily Star  | English

Bangladeshi students likely to fly home from Kyrgyzstan on chartered flights

There have been no major attacks in hostels of international students since last night

20m ago