কাতারে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের বাকি ম্যাচগুলো খেলবে বাংলাদেশ

বাকি থাকা ম্যাচ তিনটিতে ভারত, আফগানিস্তান ও ওমানকে মোকাবিলা করবে বাংলাদেশ।
bangladesh football team
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইপর্বে আরও তিনটি ম্যাচ বাকি আছে বাংলাদেশের। সেগুলো হওয়ার কথা ছিল নিজেদের মাটিতে। কিন্তু এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) প্রতিটি গ্রুপের জন্য একটি করে নির্দিষ্ট ভেন্যু নির্ধারণ করে দিয়েছে।

বাছাইয়ের ‘ই’ গ্রুপে রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এই গ্রুপের বাকি সব ম্যাচ আয়োজিত হবে ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক কাতারের মাটিতে। গ্রুপের বাকি তিনটি দল হলো ভারত, আফগানিস্তান ও ওমান।

শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নির্দিষ্ট ভেন্যুতে বাছাইপর্বের বাকি অংশ শেষ করার বিষয়টি জানিয়েছে এএফসি। সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত চলবে বাছাইপর্ব।

‘ই’গ্রুপের পয়েন্ট তালিকায় সবার নিচে রয়েছে জেমি ডের শিষ্যরা। ৫ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট মাত্র ১। ৬ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে আছে কাতার। দুইয়ে থাকা ওমানের পয়েন্ট ৫ ম্যাচে ১২। বাকি থাকা ম্যাচ তিনটিতে ভারত, আফগানিস্তান ও ওমানকে মোকাবিলা করবে বাংলাদেশ।

চলতি মাসের শেষদিকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাছাইয়ের একটি ম্যাচ খেলার কথা ছিল লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। তা পিছিয়ে যাওয়ায় নেপালে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট খেলতে যাচ্ছে তারা। বাংলাদেশ ও নেপালের পাশাপাশি অংশ নিচ্ছে কিরগিজস্তান অনূর্ধ্ব-২৩ দল।

টুর্নামেন্ট সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে আগামী ১৪ মার্চ। তার আগের দিন করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানো হবে খেলোয়াড়দের। ক্যাম্প হবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। এরপর ১৮ মার্চ নেপালের উদ্দেশে রওনা হবে বাংলাদেশ।

আগামী ২৩ মার্চ শুরু হয়ে টুর্নামেন্টটি চলবে ২৯ মার্চ পর্যন্ত। লিগভিত্তিক এই টুর্নামেন্টে প্রতিটি দল একবার করে পরস্পরকে মোকাবিলা করবে। শীর্ষ দুটি দল খেলবে ফাইনাল। সবমিলিয়ে চারটি ম্যাচ মাঠে গড়াবে। টুর্নামেন্টের ভেন্যু কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়াম।

Comments