শীর্ষ খবর

আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে হেফাজতে ভর বিএনপির: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, একের পর এক আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি অবশেষে ভর করেছে হেফাজতের জ্বালাও-পোড়াও রাজনীতি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ওপর।
ওবায়দুল কাদের
ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, একের পর এক আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি অবশেষে ভর করেছে হেফাজতের জ্বালাও-পোড়াও রাজনীতি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ওপর।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাভারে দ্বিতীয় আমিন বাজার সেতু নির্মাণকাজের উদ্বোধন শেষে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির নীতিগত রাজনীতির কারণে অনেকেই বিএনপির আন্দোলনে সাড়া দিচ্ছেন না। কারণ তাদের আন্দোলন মানেই মানুষ মনে করেন আগুন সন্ত্রাস, তাদের আন্দোলন মানেই জ্বালাও পোড়াও। তারা একের পর এক আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে ভর করেছে হেফাজতের জ্বালাও-পোড়াও রাজনীতি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ওপর।

তিনি বলেন, বিএনপির রাজনৈতিক আইসোলেশন শুরু হয়ে গেছে।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপির বক্তব্য প্রমাণ করে তাদের আজ লেজে গোবরে দশা। জনগণ মনে করে বিএনপির মনোজগতে ভাইরাসের নেতিবাচক প্রভাব বাসা বেঁধেছে। তারা করোনার চেয়েও ভয়াবহ ভাইরাসে আক্রান্ত, যার লক্ষণ নেতিবাচকতা, মিথ্যাচার, ষড়যন্ত্র, আগুন সন্ত্রাস।

করোনা নিয়ে বিএনপি নিন্দনীয় রাজনীতি করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, করোনা নিয়ে বিএনপির রাজনীতি আমরা লক্ষ্য করে যাচ্ছি। তারা একবার বলে লকডাউন দিতে হবে, আবার বলে লকডাউন দিলে মানুষের কী হবে? করোনা নিয়ে তাদের দ্বিমুখী নীতি মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। তারা সরকারকে হটাতে এসব কথা বলছে, কিন্তু তারা তো আর জনগণের পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাচ্ছেন না। পাচ্ছেন না জনগণের কোন আস্থা। জনগণের সম্পৃক্তি ছাড়া এদেশে কোন দিন কোন আন্দোলন সফল হয়নি। তারা জনগনের সম্পৃক্তি ঘটাতে পারেননি, আর দেশে আন্দোলনের কোন বস্তুগত পরিস্থিতিও বিরাজমান নেই, সে কারণে তারা বারবার আন্দোলনের ডাক দিয়েও কোন সাড়া পাচ্ছেন না।

দ্বিতীয় আমিন বাজার সেতু নির্মাণকাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, ঢাকা আরিচা মহাসড়কের আমিনবাজার, সালেহপুর ও নয়ারহাটে তিনটি সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে একটি প্রকল্প গ্রহণ করে সরকার। এই সেতুটি প্রকল্পের আওতায় নির্মাণ করা হচ্ছে। ৮ লেনের সেতু ছাড়াও সেতুর দুপ্রান্তে দেড় কিলোমিটার সংযোগ সড়ক থাকবে। সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে প্রায় ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ২৩৩ মিটার দীর্ঘ দ্বিতীয় আমিন বাজার সেতু।

তিনি বলেন, আমিনবাজার সেতুর ঢাকা প্রান্তে গাবতলী বাস টার্মিনালের সামনের সড়কটি ১২ লেন কিন্তু বিদ্যমান আমিনবাজার সেতুটি ৪ লেন হওয়ায় যানবাহন প্রবেশের সময় সেতুর মুখে প্রায় সব সময় যানজট লেগে থাকে। এছাড়া প্রস্তাবিত ঢাকা ইনারসার্কুলার রোড বিদ্যমান আমিনবাজার সেতুর গাবতলী প্রান্তে সংযোগ সড়কের উপর দিয়ে অতিক্রম করবে। তাই সার্কুলার রোডের যানবাহনের আগমন-নির্গমনের সুবিধার্থে আরও অতিরিক্ত ৪ লেন সেতুর প্রয়োজন। ফলে আমিনবাজার সেতুর পাশের পুরাতন স্টিল ব্রিজটি তুলে ৮ লেন বিশিষ্ট সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

আগামী ২০২৩ সালের ১ ফেব্রুয়ারি সেতু নির্মাণকাজ সমাপ্তের কথা রয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Economy with deep scars limps along

Business and industrial activities resumed yesterday amid a semblance of normalcy after a spasm of violence, internet outage and a curfew that left deep wounds in almost all corners of the economy.

6h ago