অ্যানফিল্ডেও লিভারপুলকে হারাতে চায় রিয়াল

ঘরের মাঠে লিভারপুলকে হারিয়ে কাজটা প্রায় সেরে রেখেছে রিয়াল মাদ্রিদ। অ্যানফিল্ডে নুন্যতম ব্যবধানে হারলেও তাই সেমি-ফাইনালে উঠতে পারবে দলটি। তাই আক্রমণের চেয়ে নিজের রক্ষণ ঠিকঠাকভাবে সামলাতে পারলেই সমীকরণটা সহজ হয়ে যাবে তাদের। কিন্তু এমনটা ভাবছেন না রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান। অ্যানফিল্ডেও অলরেডদের হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নিতে চান এ ফরাসি কোচ।
real madrid valencia
ছবি: রিয়াল মাদ্রিদ টুইটার

ঘরের মাঠে লিভারপুলকে হারিয়ে কাজটা প্রায় সেরে রেখেছে রিয়াল মাদ্রিদ। অ্যানফিল্ডে নুন্যতম ব্যবধানে হারলেও সেমি-ফাইনালে জায়গা পাবে দলটি। তাই আক্রমণের চেয়ে নিজের রক্ষণ ঠিকঠাকভাবে সামলাতে পারলেই সমীকরণটা সহজ হয়ে যাবে তাদের। কিন্তু এমনটা ভাবছেন না রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান। অ্যানফিল্ডেও অলরেডদের হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নিতে চান এ ফরাসি কোচ।

কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে নিজেদের মাঠে ৩-২ গোলের লিভারপুলকে হারায় স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। একই সপ্তাহে নিজেদের মাঠে আরও একটি দারুণ জয় পায় দলটি। লা লিগার ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে হারিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা আরও জমিয়ে দিয়েছে তারা। সবমিলিয়ে তাই আত্মবিশ্বাসে টগবগে লস ব্লাঙ্কোসরা। সে ধারায় আট দিনের ব্যবধানে এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের দ্বিতীয় ম্যাচে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নদেরও হারাতে চান জিদান।

লিভারপুলের মাঠে নামার আগে তাই জয়ের প্রত্যয় ঝরে কোচ জিদানের কণ্ঠে, 'আমরা সেখানে আমাদের প্রচেষ্টা দেখাতে যাচ্ছি না। রিয়াল মাদ্রিদ সবসময় ম্যাচ জেতার চেষ্টা করে। আমরা আরও একটি কঠিন লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত। আবেগ ও শারীরিক দিকগুলোও এ ম্যাচে একসঙ্গে থাকবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হচ্ছে দলটি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য তৈরি। আমরা জয়ের জন্যই মাঠে নামব।'

এ ম্যাচে অবশ্য দলের অনেক সেরা তারকাদেরই পাচ্ছেন না জিদান। আগের দিনই কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার ও অধিনায়ক সের্জিও রামোস। এছাড়া আরেক সেন্টার ব্যাক রাফায়েল ভারানেও ইনজুরিতে। দানি কারবাহাল, লুকাস ভাসকেস ও এডেন হ্যাজার্ডও ইনজুরিতে। তবে যারা আছেন তাদের নিয়েই লড়াই করতে আত্মবিশ্বাসী জিদান, 'কঠিন সময়ে দল সবসময় একত্রিত হয় এবং এটা আপনাকে দলের দৃঢ়তা প্রকাশ করে। আমাদের অনেক কিছু ঘটে গেছে এবং আমরা অনেক খেলোয়াড়কে হারিয়েছি। আমি তাদের সকলকে পেলে খুব খুশি হতাম তবে আমরা আমাদের যারা আছে তাদের নিয়েই একটি ভালো ম্যাচ খেলতে প্রস্তুত করব।'

অথচ চলতি মৌসুমের শুরুটা ভালো ছিল না রিয়ালের। একের পর এক খেলোয়াড়দের ইনজুরিতে সেরা দলকে কখনোই মাঠে পাননি জিদান। বেশ কিছু দুর্বল দলের সঙ্গে হেরে কোণঠাসা হয়ে পড়েছিল তারা। তবে শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও লা লিগায় দুই আসরেই দারুণভাবে টিকে আছে তারা। শিরোপা জিততে তাই শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন এ ফরাসি কোচ, 'আমরা জানি যে (এই মৌসুম) অনেক জটিল এবং এটা একটা আজব মৌসুম। আমাদের যতো দ্রুত সম্ভব সব কিছু ঠিক করে নিতে হবে আমাদের সামনে আরও খেলা রয়েছে। আমরা লড়াই করে যাব, আমরা দুটি প্রতিযোগিতাতেই টিকে আছি এবং শেষ পর্যন্ত চেষ্টা করে যাব।'

Comments

The Daily Star  | English

Signal 7 at Payra, Mongla as Cyclone Remal forms over Bay

Cox’s Bazar, Ctg maritime ports asked to hoist Signal 6

1h ago