সামরিক সহযোগিতা এগিয়ে নিতে একমত বাংলাদেশ ও চীন: প্রতিবেদন

এক সংক্ষিপ্ত সফরে গত মঙ্গলবার ঢাকায় আসেন চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গি।
চীনের স্টেট কাউন্সিলর ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গির সঙ্গে ঢাকায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের বৈঠক। ছবি: সিনহুয়া

এক সংক্ষিপ্ত সফরে গত মঙ্গলবার ঢাকায় আসেন চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গি।

বুধবার বেইজিংভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিজিটিএন এক প্রতিবেদনে জানায়, বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বৈঠকে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সামরিক সহযোগিতা এগিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আলোচনা করেছেন চীনের স্টেট কাউন্সিলর ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গি।

বৈঠকে দুই দেশ দ্বিপক্ষীয় সামরিক সহযোগিতা এগিয়ে নিতে একমত হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়।

সিজিটিএনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ জানান, বাংলাদেশ ও চীন সময়ের পরীক্ষিত বন্ধু এবং নির্ভরযোগ্য কৌশলগত অংশীদার। তিনি আরও জানান, বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে সম্পর্ককে অত্যন্ত গুরুত্ব দেয় এবং চীনের মূল স্বার্থকে দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ আন্তর্জাতিক বিষয়ে সমন্বয় জোরদার এবং আঞ্চলিক শান্তি, স্থিতিশীলতা, সমৃদ্ধি ও উন্নয়নের সুরক্ষায় উভয় দেশকে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। এছাড়াও দুই দেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যে সম্পর্কের অগ্রগতি ও বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহারিক সহযোগিতা জোরদার করবে বলে আশা জানান তিনি।

সিজিটিএনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গি বৈঠকে বলেন, চীন ও বাংলাদেশ প্রাচীনকাল থেকেই বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী এবং তাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে।

তিনি আরও জানান, বর্তমানে উভয় দেশই জাতীয় জীবন পুনরুদ্ধার ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ সময় পার করছে। দুই দেশের মধ্যে উন্নয়ন কৌশল ও একটি বিস্তৃত সম্ভাবনার একটি সমন্বয় রয়েছে।

তিনি জানান, দ্বিপক্ষীয় কৌশলগত সহযোগিতার অংশীদারিত্বকে এগিয়ে নিতে দুদেশের নেতার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ঐকমত্য বাস্তবায়নে চীন বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী।

জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গি আরও জানান, ব্যাপক সহযোগিতার মাধ্যমে দুই সেনাবাহিনীর আরও উচ্চ-পর্যায়ের সফর বাড়ানো উচিত। পাশাপাশি, সরঞ্জাম প্রযুক্তিতে আরও গভীরতর সহযোগিতা, বিশেষ ক্ষেত্রে পারস্পরিক বিনিময় আরও প্রশস্ত করা ও দুই দেশের মধ্যে সামরিক সম্পর্ক জোরদার করা উচিত।

তিনি জানান, আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে দুই দেশের উচিত দক্ষিণ এশিয়ার বাইরের শক্তি ও সামরিক জোট যে আধিপত্যবাদ অনুশীলন করছে তার বিরুদ্ধে যৌথ প্রয়াস চালানো। 

সিজিটিএন জানায়, মঙ্গলবার বাংলাদেশের সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদও চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ওয়েই ফেঙ্গির সঙ্গে বৈঠক করেছেন। আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক পরিস্থিতি এবং পাশাপাশি দুই দেশ ও দুই সামরিক বাহিনীর সম্পর্কের বিষয়ে তারা আলোচনা করেছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Nine Rohingyas killed in Ukhiya landslides

Cox's Bazar has been witnessing heavy rainfall since yesterday

44m ago